‌আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ চোর হলে কী হবে?‌ মেজাজটি কিন্তু রাজকীয়। তাই হায়দরাবাদে যাদুঘর থেকে সপ্তম নিজামের টিফিন বাক্স চুরি করার পরে সেখানেই খাওয়াদাওয়া করতো তারা। শেষরক্ষা অবশ্য হয়নি। পুলিসের জালে ধরা পড়েছে চোরবাবাজিরা। সোনার তৈরি ওই টিফিনবক্সে বসানো ছিল হিরে, পান্না এবং রুবি। টিফিন বক্সের সঙ্গেই ছিল সোনার চামচও। ২ সেপ্টেম্বর চুরির পরে মুম্বইয়ের একটি বিলাসবহুল হোটেলে থাকছিল চোররা। তাদের খুঁজতে ১৫টি বিশেষ তদন্তকারী দল গঠন করেছিল পুলিস। তাদের প্রেপ্তারের পরে পুলিসের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, ‘‌দুই চোরকেই গ্রেপ্তার করা হয়েছে। সমস্ত চোরাই মালই উদ্ধার করা হয়েছে।’‌ সিসিটিভি ফুটেজের সূত্র ধরেই ওই দুই চোরকে গ্রেপ্তার করা সম্ভব হয়েছে।
চোর ধরা পড়ার পরেও অবশ্য সমস্যা মেটেনি। নিজাম পরিবার কল্যাণ সমিতির প্রেসিডেন্ট নবাব নজফ আলি খান এবং একটি  চিঠি লিখেছেন হায়দরাবাদ পুলিসকে। ঐতিহাসিক মূল্যসমৃদ্ধ নিজামদের নানা সামগ্রীর নিরাপত্তা বাড়ানোর দাবি তুলেছেন তিনি। পাশাপাশি নিরাপত্তারক্ষীদের ভূমিকা নিয়েও অসন্তোষ প্রকাশ করা হয়েছে তাঁর চিঠিতে।
 

জনপ্রিয়

Back To Top