আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ বড় সাফল্য এনআইএ-‌এর। লস্কর-ই-তইবার রিক্রুটারকে কাশ্মীর থেকে গ্রেফতার করল এনআইএ-‌এর তদন্তকারীরা। বৃহস্পতিবার লস্কর-ই-তইবার সদস্য আলতাফ আহমেদ রাথেরকে কাশ্মীর থেকে গ্রেফতার করল এনআইএর একটি বিশেষ তদন্তকারী দল। গোপন সূত্রে খবর পেয়ে এনআইএর তদন্তকারী দলটি কাশ্মীরের বন্দিপোরায় হানা দিয়ে আলতাফকে গ্রেফতার করে। 
এনআইএ সূত্রে জানা গিয়েছে, কাশ্মীরের বন্দিপোরার বাসিন্দা আলতাফ সেখানকার একটি স্কুলের শিক্ষক। যার শিকড় বাংলা পর্যন্ত ছড়িয়ে রয়েছে দাবি করেছে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা। তদন্তে নেমে এনআইএ জানতে পারে, এই আলতাফই বাদুড়িয়ার তানিয়া পারভিনকে পাকিস্তানের এই জঙ্গিগোষ্ঠীর মাথাদের সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দিতে সেতুবন্ধনের কাজ করেছিল। তদন্তে এনআইএ আরও জানতে পেরেছে, এই আলতাফ যুবক যুবতীদের জেহাদের জন্য উস্কে তাদেরকে দলের সদস্য পদ পাইয়ে দেওয়ার কাজ করত।
তদন্তকারীরা জানান, এই ব্যক্তির সঙ্গে উত্তর ২৪ পরগণার বাদুড়িয়ার তানিয়া পারভিনের সঙ্গে সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্মে যোগাযোগ হয়েছিল। সেখান থেকেই আলতাফ তানিয়া পারভিনকে তাদের দলে যোগ করায়। তারপর তানিয়াকে রাজি করিয়ে তাকে পাকিস্তানের লস্কর-ই-তইবার জঙ্গিগোষ্ঠীর মাথাদের সঙ্গে যোগাযোগ স্থাপন করায় আলতাফ। তদন্তকারীরা জানতে পেরেছেন, ধৃত এই জঙ্গি প্রচুর যুবক-‌যুবতীদের ভারতে জেহাদের জন্য আগ্রাসী মনোভাপন্ন করে গড়ে তুলতে প্রশিক্ষণও দিত। নতুন সদস্যদের প্রশিক্ষণ দেওয়ার ক্ষেত্রে বিশেষ ভূমিকা ছিল আলতাফের। এমনটাই দাবি তদন্তকারীদের। তবে কিভাবে এরা এই চক্র চালাত তা নিয়ে তদন্ত শুরু করেছে তদন্তকারীরা। এই চক্র আরও কতদূর বিস্তৃত তা জানতেও তদন্তে নেমেছে এনআইএর তদন্তকারীরা। 

Back To Top