আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ তামিলনাড়ুর স্পেশ্যাল সাব ইন্সপেক্টর ওয়াই উইলসনের মৃত্যু রহস্যের তদন্ত করতে নেমে দক্ষিণ ভারত জুড়ে জঙ্গি সংগঠন আইএসআইএসের হদিশ পেল এনআইএ। আর তা ঘিরেই শুরু হয়ে গিয়েছে চিরুনি তল্লাশি। প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে উইলসনের মৃত্যুর পেছনে কী আইএসআইএসের হাত আছে?‌ যদিও এই বিষয়ে কেউ মুখ খুলতে চাননি। 
তামিলনাড়ুর এই পুলিশ কর্তার খুনকে ঘিরে দুটি নাম উঠে আসছে। এক, এ আব্দুল শামিম দুই, তৌফিক। অভিযোগ, জানুয়ারি মাসের ৮ তারিখে কেরল–তামিলনাড়ু সীমান্তের এই খুন প্রকাশ্যে ফাঁস করে দিচ্ছে আইএসআইএস চক্রের। শামিম ও তৌফিককে আগেই গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তাদের জেরা করেই তল্লাশি অভিযানে নামা হয়েছে। আর সেখান থেকেই উঠে আসছে নানা তথ্য। 
জেরা করে জানা গিয়েছে, আইএস জঙ্গি সি খাজা মইনকে দিল্লি থেকে পুলিশ গ্রেপ্তার করার প্রতিশোধ নিতেই তামিলনাড়ুর পুলিশ অফিসারকে খুন করে দুই অভিযুক্ত। আর এই খুনের কিনারা করতে গিয়ে পুলিশ একের পর এক আইএস ডেরার খোঁজ পেতে শুরু করে। এদিন জাতীয় তদন্তকারী সংস্থার গোয়েন্দারা কর্নাটক ও তামিলনাড়ু জুড়ে মোট ২৫টি জায়গায় তল্লাশি চালাতে শুরু করে। তাঁদের অনুমান, ভুয়ো নথি দিয়ে সেখানে সিম কার্ড হাতিয়ে দক্ষিণ ভারত জুড়ে জাল বিছিয়ে বসেছে আইএস জঙ্গিরা।
 

জনপ্রিয়

Back To Top