‌আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ আপাতদৃষ্টিতে একটা সাধারণ গ্রেপ্তার। সপ্তাহ ঘুরতেই চমকে দেওয়ার মতো তথ্য বেরিয়ে এল সেই গ্রেপ্তারি থেকে। পেশায় দর্জি মধ্যপ্রদেশের ভোপালের বাসিন্দা আদেশ খামব্রা–কে জেরা করে জানা গেল, সে একজন সিরিয়াল কিলার। কম করে ৩৩জনকে ঠান্ডা মাথায় খুন করেছে ৪৮ বছরের এই প্রৌঢ়। হাইওয়ের ধারে  ট্রাক থামিয়ে গাড়ির চালক ও খালাসিদের খুন করে ট্রাকের মালপত্র লুঠ করতো সে। ট্রাকটিকেও বেচে দিতো। গত আট বছরের ধরে এই কাজ করে আসছে সে। শুধু তাই নয়, টাকা নিয়েও খুন করতো সে। কমপক্ষে ছ’‌টি রাজ্যের দুষ্কৃতীদের সঙ্গে যোগাযোগ রয়েছে তার। টাকার লোভেই সে এই কাজ করতো বলে জানিয়েছে।
মধ্যপ্রদেশের পুলিস আধিকারিক রাহুল কুমার লোধা বলেছেন, গত ১২ আগস্ট ৫০টন লোহার রড নিয়ে ভোপালের মন্দিদীপ এলাকা থেকে রওনা হয়েছিল একটি ট্রাক। কিন্তু পরে তার আর খোঁজ পাওয়া যায়নি। পুলিসে ওই ট্রাক নিখোঁজ হওয়ার অভিযোগ দায়ের করা হয়। পরে ট্রাকের চালক মাখন সিংয়ের দেহ উদ্ধার করা হয় বিলখিরিয়া এলাকা থেকে। তারও তিনদিন পরে ভোপালের অযোধ্যনগর থেকে খালি ট্রাকটি উদ্ধার করা হয়। তদন্তে নেমে সাতজনকে গ্রেপ্তার করে। এরা ওই রড কেনা এবং বেচার সঙ্গে জড়িত ছিল ওই সাতজন। তাদের জেরা করে আরও ১০জনকে গ্রেপ্তার করা হয়। তাদের জেরা করে আদেশের খোঁজ পায় পুলিস। তখন তাকে গ্রেপ্তার করে হয়।
জেরায় আদেশ কবুল করেন, ট্রাকের চালক–খালাসীদের সঙ্গে বন্ধুত্ব করে তাদের খাবারে নেশার ওষুধ মিশিয়ে দিত সে। তারপরে তাদের হত্যা করতো আদেশ। দেহ পুঁতে দিত জঙ্গলের মধ্যে।

জনপ্রিয়

Back To Top