আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ কেন্দ্রের অনুমতি ছাড়া চীন থেকে বিদ্যুৎ সরঞ্জাম নিয়ে আসা যাবে না। নির্দেশ দিলেন কেন্দ্রীয় বিদ্যুৎমন্ত্রী আর কে সিং। চীনের সঙ্গে দ্বিপীক্ষিক দূরত্ব বাড়িয়ে ইতিমধ্যেই ৫৯টি অ্যাপ নিষিদ্ধ করেছে কেন্দ্র। সড়ক নির্মাণ প্রকল্প থেকেও চীনা সংস্থাকে দূরে রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে মোদি সরকার। এবার লক্ষ্য চীন থেকে বিদ্যুৎ সরঞ্জামের আমদানি বন্ধ করা। বিদ্যুৎমন্ত্রী বলেন, ‘‌চীন বা পাকিস্তানের মতো দেশ থেকে বিদ্যুতের সরঞ্জাম আমদানি করতে হলে ভারতীয় সংস্থাকে আগে কেন্দ্রের অনুমতি নিতে হবে। কিন্তু আমদানি আটকাতে কী যুক্তি দেখাচ্ছে কেন্দ্র?‌ মন্ত্রীর আশঙ্কা প্রকাশ করে জানিয়েছেন, চীনের থেকে আসা সরঞ্জামে ‘‌ট্রোজান হর্স’ লুকিয়ে রাখা হতে পারে, যা কিনা দেশে বিদ্যুৎ বিপর্যয় ঘটাবে। গ্রিড ব্যবস্থাকেই অচল করে দিতে পারে। মন্ত্রীর বক্তব্য অনুয়ায়ী, একেবারে ট্রয়ের ঘোড়ার মতো ‘‌অতর্কিতে হামলা’‌‌ চালাতে পারে ওই ভাইরাস। তাই চীন থেকে আমদানি করা সরঞ্জাম সরকারি ল্যাবে পরীক্ষা করাতে হবে। বিদ্যুৎমন্ত্রী জানান, পরীক্ষা করে দেখা হবে, সরঞ্জামে এরকম কোনও এম্বেডেড সফ্টওয়্যার আছে কিনা!‌ পাশাপাশি এটাও দেখা হবে, আমদানিকৃত সরঞ্জামের মান ভারতের গ্রিড ব্যবস্থার সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে বানানো হয়েছে কিনা। এবিষয়ে ইতিমধ্যেই বিভিন্ন রাজ্যের বিদ্যুৎমন্ত্রীদের সঙ্গে কথা বলেন তিনি। আমদানি নির্ভরতা বন্ধ করার ইঙ্গিত দিয়ে আর কে সিং বলেন, ‘‌যে দেশ আমাদের ভূখণ্ডে ঢুকে পড়ে জওয়ান মারছে, সে দেশে আমরা কর্মসংস্থান তৈরি করব?‌’‌ ২০১৮–’১৯ অর্থবর্ষে ভারত ৭১ হাজার কোটি টাকার বিদ্যুৎ সরঞ্জাম আমদানি করেছে। তার মধ্যে চীন থেকে এসেছে ২১ হাজার কোটি টাকার সামগ্রী।

জনপ্রিয়

Back To Top