আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ দেশে করাল থাবা বসিয়েছে করোনা ভাইরাস। গত প্রায় তিন মাস ধরে চলছে লকডাউন। ঘরবন্দি দেশবাসী। তার মধ্যেও দেশে অপরাধ কিন্তু কমল না। বিশেষত মহিলা ও শিশু নিগ্রহ। এবার ঘরেই চলল অত্যাচার। ঘটনা তামিলনাড়ুর। ১৪ বছরের মেয়েকে গত তিন মাস ধরে লাগাতার ধর্ষণ করে বাবা। কিশোরী এখন গর্ভবতী।
মায়িলাদুথুরাই পুলিশ গ্রেফতার করেছে অভিযুক্তকে। ৪০ বছরের অভিযুক্ত পেশায় ট্যাক্সি চালক। গত তিন মাস ধরে নিজের মেয়েকে ধর্ষণ করেছে সে। দিন কয়েক আগে পেটে ব্যথা, বমি শুরু হয় কিশোরীর। তার মাকে জানায়। মা সরকারি হাসপাতালে নিয়ে যান। সেখানে চিকিৎসকরা পরীক্ষা করে জানান, মেয়েটি গর্ভবতী। এর পরই মায়ের কাছে সব কথা জানায় কিশোরী। বলে, গত তিন মাস ধরে অমানুষিক অত্যাচার চালিয়েছে বাবা।
মেয়ের কাছে সব শুনে স্বামীর নামে অভিযোগ দায়ের করেন মহিলা। তাঁর অভিযোগের ভিত্তিতেই অভিযুক্তকে গ্রেফতার করা হয়। তার বিরুদ্ধে নাবালিকাকে ধর্ষণ, গর্ভবতী করে দেওয়ার অভিযোগ দায়ের হয়েছে পকসো ধারায়। এখন বিচারবিভাগীয় হেফাজতে রয়েছে সে। 
কিশোরীর এখন হাসপাতালে চিকিৎসা চলছে। ছাড়া পেলে শিশু কল্যাণ কমিটির হেফাজতে রাখা হবে তাকে। নাগাপত্তিনামের শিশু কল্যাণ দফতর জানিয়েছে, পরিবারের চাপে কিশোরী বয়ান বদল করতে পারে। তাই তাকে বাড়িতে পাঠানো হবে না। হোমে রেখেই পড়াযসোনা করানো হবে তাকে। 
 

জনপ্রিয়

Back To Top