আজকাল ওয়েবডেস্ক: ‌হিন্দুত্বের তাস খেলতে এবার নয়া পদক্ষেপ গ্রহণ করল বসুন্ধরা রাজের সরকার। রাজস্থান পাবলিক সার্ভিস কমিশনের অন্তর্গত রাজস্থান অ্যামিনিস্ট্রেটার সার্ভিসের পাঠক্রমে পরিবর্তন করা হচ্ছে। সেখানে এবার ভগবৎ গীতাকে অন্তর্ভূক্ত করা হচ্ছে। নীতি শাস্ত্র নাম দিয়ে গীতা সিলেবাসের অন্তর্ভূক্ত করা হচ্ছে বলে খবর। যা নিয়ে রীতিমত চর্চা শুরু হয়ে গিয়েছে। 
২০১৮ সালের রাজস্থান অ্যামিনিস্ট্রেটার সার্ভিসের পাঠক্রমে শুধু গীতাই নয়, মহাত্মা গান্ধীর জীবনীকেও স্থান দেওয়া হয়েছে। যাতে সরাসরি হিন্দুত্ববাদের তকমা না লাগে রাজস্থান সরকারের ওপর। কিন্তু নতুন আমলা তৈরি করতে এই পদক্ষেপ হিন্দুত্ব তাসেরই প্রতিফলন বলে মনে করছেন রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকরা। কারণ রাজস্থান অ্যামিনিস্ট্রেটার সার্ভিসের পাঠক্রমে রাখা হয়েছে গীতায় কুরুক্ষেত্র যুদ্ধের সময় অর্জুনের সঙ্গে কৃষ্ণের কথোপকথনের বিষয়। সেখান থেকেই প্রশ্ন থাকবে। যার উত্তর লিখতে হবে আমলা হতে আসা পরীক্ষার্থীদের। 
রাজস্থান পাবলিক সার্ভিস কমিশন সূত্রে খবর, রাজস্থান অ্যামিনিস্ট্রেটার সার্ভিসের ২০১৮ সালের পরীক্ষার নোটিফিকেশন এবার দেরিতে প্রকাশ করা হয়। যার অনলাইনে ফর্ম জমা করার তারিখ ছিল ১২ এপ্রিল। তা বাড়িয়ে করা হয়েছে মে মাসের ১১ তারিখ পর্যন্ত। রাজস্থানের প্রশাসনে নিয়োগের ক্ষেত্রে এই দপ্তর কাজ করে থাকে। সেখানে কুরুক্ষেত্রে যুদ্ধে নামার আগে অর্জুণকে কী রণনীতি শিখিয়েছিলেন কৃষ্ণ তার কার্যকারিতা কতটা সেটা মেলাতে হবে কার্যক্ষেত্রে। ‌এমনই নির্দেশিকা নিয়ে এখন রাজস্থান জুড়ে আলোচনা তুঙ্গে। 

জনপ্রিয়

Back To Top