আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ ফ্রান্সে অবস্থিত অনিল আম্বানির টেলিকম কোম্পানি ‘‌রিলায়েন্স অ্যাটলান্টিক ফ্ল্যাগ ফ্রান্স’‌–এর ১৬২.‌৬ মিলিয়ন মার্কিন ডলার বা ১৪৩.‌৭ মিলিয়ন ইউরোর ধার শোধ করেছিল ফরাসি কোম্পানি। এই বোমা ফাটিয়েছে ফ্রান্সের জাতীয়স্তরের সংবাদপত্র লা মঁদে। শনিবার প্রকাশিত রিপোর্টে ওই দৈনিকটি দাবি করেছে, ২০১৫–র এপ্রিলে ফ্রান্স সফরে মোদি ঘোষণা করেন, ফরাসি কোম্পানি দাঁসোর কাছ থেকে ৩৬টি রাফালে যুদ্ধবিমান কেনার চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে। ওই বছরেরই অক্টোবরে অনিলের কোম্পানির বিপুল অঙ্কের ধার মিটিয়ে দিয়েছিল দাঁসো।
অনিলের ওই টেলিকম কোম্পানির বকেয়া কর সংক্রান্ত মামলার তদন্ত করেছিল ফ্রান্সের কর দপ্তর। তদন্তে তারা জানতে পেরেছিল ২০০৭–১০ পর্যন্ত প্রায় ৬০ মিলিয়ন ইউরো কর বাকি আছে কোম্পানির। অনিল ৭.‌৬ মিলিয়ন ইউরো শোধ করতে চেয়েছিলেন যা অস্বীকার করেছিল ফরাসি কর দপ্তর। এরপর ২০১১০–১২ সালে দ্বিতীয়বার তদন্ত হয় ওই কোম্পানিতে। তখন অতিরিক্ত ৯১ মিলিয়ন ইউরো মেটাতে বলা হয়েছিল অনিলকে। এরপরই ২০১৫ সালে মোদি ফ্রান্স সফরে গিয়ে রাফালে চুক্তির ঘোষণা করেন। সেই সময় অনিলের কোম্পানির ধার ছুঁয়েছিল ১৫১ মিলিয়ন ইউরো। কিন্তু মোদির রাফালে চুক্তির ঘোষণার ছয় মাস পর অনিলের কোম্পানির ১৪৩.‌৭ মিলিয়ন ইউরোর কর মাফ করে ৭.‌৩ মিলিয়ন ইউরো নিয়ে বিষয়টি মিটিয়ে দেয় ফ্রান্সের কর দপ্তর। 
ফরাসি সংবাদপত্রের ওই খবরের পর নিজেদের সাফাইয়ে বিবৃতি দিয়ে অনিল আম্বানির কোম্পানি রিলায়েন্স কমিউনিকেশনস্‌ বলেছে, কর মেটানোর খবর সম্পূর্ণ ভুয়ো এবং অবৈধ। রাফালে চুক্তি থেকে কোনও সুবিধা নেয়নি তারা। ফ্রান্সের কর দপ্তরের নিয়ম মেনেই ফরাসি কোম্পানির ধার শোধ করা হয়েছে। ১০ বছর আগের ওই ঘটনায় তাদের ফ্রান্সে অবস্থিত টেলিকম কোম্পানি ২০ কোটি টাকা বা ২.‌৭ মিলিয়ন ইউরো, ‌লোকসানে চলছিল। অথচ ফরাসি কর দপ্তর দাবি করেছিল ১১০০ কোটি টাকা। ফ্রান্সের কর নিয়ম মেনেই দুপক্ষের সমঝোতা হয়েছিল ৫৬ কোটি টাকায়।         ‌‌‌

জনপ্রিয়

Back To Top