আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ এসইউভি থেকে এক বছরের মেয়ে গড়িয়ে পড়ে গিয়েছে। অথচ হুঁশই নেই বাবা, মায়ের। জঙ্গলের সামনে রাস্তায় যখন হামা টানছে তাঁদের মেয়ে, তাঁরা গাড়ি নিয়ে তখন অনেক দূর। ভাইরাল হওয়া সেই ভিডিও দেখে হতবাক নেটিজেনরা।  
ঘটনাটি ঘটেছিল শনিবার রাতে কেরলের পর্যটকপ্রিয় পার্বত্য শহর মুন্নারে। জঙ্গলের সামনে চেক পোস্টের কাছে হামাগুড়ি দিচ্ছিল শিশুটি। তার মাথাতেও চোট লাগায় রক্তপাত হচ্ছিল। রাত ৯.‌৪০ মিনিট নাগাদ ওই এলাকায় কর্তব্যরত বনকর্মী শিশুটিকে দেখতে পেয়ে তৎক্ষণাৎ স্থানীয় থানায় ফোন করে এসআই সন্তোষ কুমার কেএম–কে ঘটনাটি জানান। সন্তোষ জানালেন, ‘‌আমরা তৎক্ষণাৎ ঘটনাস্থলের উদ্দেশ্যে রওনা দিয়ে রাত ১০ নাগাদ শিশুটিকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যাই।

সেখানেই শিশুর প্রাথমিক চিকিৎসা হয়। এরপর লাগোয়া সব কটি থানায় কোনও বাচ্চা হারানোর রিপোর্ট দায়ের হয়েছে কিনা খোঁজ নিই। রাত ১১টা নাগাদ জানতে পারি প্রায় ৬ কিলোমিটার দূরে একটি থানায় এক দম্পতি তাঁদের মেয়ে হারিয়ে যাওয়ার রিপোর্ট দায়ের করেছেন। তারপরই আমরা ওই দম্পতিকে এখানে ডাকি আর তাঁদের মেয়েকে তাঁদের হাতে তুলে দিই।’‌
সন্তোষ আরও জানিয়েছে, তামিলনাড়ুতে ছোট মেয়ের মুণ্ডন অনুষ্ঠান সেরে বড় দুই ছেলে, মেয়ের সঙ্গে বাড়ি ফিরছিলেন ওই দম্পতি। গাড়ির চারজন আরোহী কীভাবে অতটুকু এক শিশুর সম্পর্কে সম্পূর্ণ নিস্পৃহ থাকেন তা ভেবে অবাক পুলিস। দায়িত্বজ্ঞানহীন বাবা, মায়ের প্রতি ক্ষোভপ্রকাশ করেছে সোশ্যাল মিডিয়া।
ছবি:‌ ডেইলিহান্ট, ভিডিও:‌ এএনআই   

জনপ্রিয়

Back To Top