আবু হায়াত বিশ্বাস, দিল্লি, ২৫ মার্চ- লকডাউন চললেও দিল্লিবাসীকে সমস্যায় পড়তে হবে না। হবে না খাদ্য সামগ্রীর অভাবও। আশ্বাস দিলেন দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল। বুধবার উপ–‌রাজ্যপাল অনিল বৈজল ও দিল্লি সরকারের আধিকারিকদের সঙ্গে এক প্রস্থ বৈঠক করেন তিনি। বৈঠকের পরে কেজরিওয়াল জানান, করোনা ভাইরাস রুখতে দীর্ঘ লড়াই করতে হবে। লকডাউন নিয়ে সাধারণ মানুষকে আতঙ্কিত না হওয়ার আবেদন জানিয়ে তিনি বলেন, নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিস কেনার জন্য তাড়াহুড়ো করার দরকার নেই। খাদ্যসামগ্রী মজুত করে রাখারও প্রয়োজন নেই। করোনা সংক্রমণ রুখতে দিল্লির মানুষকে লকডাউন মেনে চলার আবেদন জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। কেজরিওয়াল জানান, সবজি বিক্রেতা, পানীয় জল–‌সহ জরুরি পরিষেবার সঙ্গে যুক্তদের দেওয়া হবে পাস। 
বুধবার সন্ধে পর্যন্ত দিল্লিতে করোনা ভাইরাস আক্রান্তের সংখ্যা ৩৫। গতকাল রাতে কেজরিওয়াল দাবি করেছিলেন, শেষ ৪০ ঘণ্টায় নতুন করে আক্রান্তের খবর নেই। এদিন অবশ্য করোনা ভাইরাসে ৫ জনের আক্রান্ত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।
বুধবার সকালে রাজধানীর কেন্দ্রীয় ভাণ্ডার, সুফল স্টোরগুলিতে চাল, ডাল, আটা–‌সহ নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্য ও আনাজপাতি কেনার জন্য লম্বা লাইন পড়ে। মুদি দোকানে, সবজি বাজারে ভিড় লক্ষ করা যায়। পরিস্থিতি মোকাবিলা ও দিল্লির বাসিন্দাদের আশ্বস্ত করতে শক্তহাতে রাশ ধরেন কেজরিওয়াল। দাবি করেন, এই কঠিন সময়ে কেউ যাতে খালি পেটে না থাকেন, তা নিশ্চিত করতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে আপ সরকার। ইতিমধ্যেই আপ সরকার ঘোষণা করেছে, রাজধানীর ৭২ লক্ষের বেশি মানুষকে বিনামূল্যে রেশন সরবরাহ করবে। পাঁচ কেজির বদলে জনপিছু সাড়ে সাত কেজি রেশন সামগ্রী দেওয়া হবে। রাজধানীর নাইট শেল্টারগুলি থেকে গৃহহীনদের নিখরচায় খাবার পরিবেশন করা এদিনই শুরু হয়ে গিয়েছে। 

জনপ্রিয়

Back To Top