আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌  টাটা গোষ্ঠী এবং মিস্ত্রি গোষ্ঠীর আইনি বিবাদ তুঙ্গে উঠল। মঙ্গলবার সুপ্রিম কোর্টে টাটা সন্স বলেছে, যদি অর্থাভাবে মিস্ত্রিদের ঋণ মেটাতে সমস্যা হয়, তাহলে তারা মিস্ত্রিদের ঋণ জর্জরিত শাপুরজি–পালোনজি বা এসপি গোষ্ঠীর ১৮ শতাংশ শেয়ার কিনতে আগ্রহী। অন্যদিকে, টাটা গোষ্ঠীর বৃহত্তম সংখ্যালঘু শেয়ারহোল্ডার মিস্ত্রিরা মঙ্গলবার সুপ্রিম কোর্টে বলেছে, তারা টাটা গোষ্ঠী থেকে সম্পূর্ণভাবে সরে যেতে চাইছে। কারণ, টাটার শেয়ারের উপর ধার নেওয়া আটকে দিয়েছে টাটা গোষ্ঠী। টাটা গোষ্ঠীর দাবি, এভাবে ধার নিলে শেয়ারের নিরাপত্তা থাকবে না কারণ ভুল লগ্নিকারীদের হাতে চলে যেতে পারে শেয়ার। এদিন শীর্ষ আদালত মিস্ত্রি গোষ্ঠীকে নির্দেশ দিয়েছে আগামী ২৮ অক্টোবর পর্যন্ত টাটার কোনও শেয়ারের উপর ঋণ বা বিক্রি করতে পারবে না।
মঙ্গলবার এসপি গোষ্ঠীর তরফে বিবৃতি দিয়ে বলা হয়েছে, ‘‌এভাবে শেয়ারের উপর ঋণ নেওয়া আটকে দেওয়া টাটা গোষ্ঠীর ধ্বংসাত্মক মনোভাবকেই বোঝায়। এসপি–টাটা সম্পর্ক গত ৭০ বছর ধরে পারস্পরিক বিশ্বাস, আস্থা, আর বন্ধুত্বের উপরই দাঁড়িয়েছিল। আজ ভগ্নহৃদয়ে বলতে হচ্ছে মিস্ত্রি পরিবার মনে করে স্বার্থের জন্য পৃথক হয়ে যাওয়াই সব শেয়ারহোল্ডার গোষ্ঠীদের পক্ষে নিরাপদ হবে।’‌ টাটা সন্সের তরফে অবশ্য কোনও প্রতিক্রিয়া মেলেনি এখনও।
এসপি গোষ্ঠীর মালিক পালোলজি মিস্ত্রি এবং তাঁর পরিবার টাটা সন্সের ১৮ শতাংশ শেয়ারের মালিক। দীর্ঘদিনের পারিবারিক বন্ধুত্বের কারণে রতন টাটা পদত্যাগ করে টাটা সন্সের রাশ তুলে দিয়েছিলেন পালোনজির ছেলে সাইরাস মিস্ত্রির হাতেই। কিন্তু ২০১৬ সালে টাটা সন্সের চেয়ারম্যান পদ থেকে বহিষ্কৃত হওয়ার পর থেকেই টাটা গোষ্ঠীর সঙ্গে আইনি লড়াইয়ে জড়িয়ে পড়ে মিস্ত্রি পরিবার।

জনপ্রিয়

Back To Top