আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ ‌হাসপাতালের সর্বত্র ছড়িয়ে পড়েছে আগুন। সকলে নিজের প্রাণ বাঁচাতে ব্যস্ত। আর সেই সময়ে তিরিশ বছরের এক মহিলাকে প্রসব যন্ত্রণায় কাতরাতে দেখে তখনই অস্ত্রোপচারের সিদ্ধান্ত নিলেন দিল্লির এইমস হাসপাতালের চিকিৎসকেরা। ওই বিভৎস পরিস্থিতিতেও চিকিৎসকদের তৎপরতায় একটি সুস্থ স্বাভাবিক শিশুকন্যার জন্ম দিতে সক্ষম হলেন ওই মহিলা। 
শনিবার বিকেলে এইমস হাসপাতালের এমার্জেন্সি ওয়ার্ডের কাছে একটি বিল্ডিংয়ে আগুন লাগে। একতলা থেকে আগুন ছড়িয়ে পড়ে দোতলায়। ধোঁয়ায় ঢাকা পড়ে চতুর্দিক। রোগীদের পিসি ব্লক থেকে সরিয়ে নেওয়া হয় সঙ্গে সঙ্গে। চিকিৎসকদের ঘর আর হাসপাতালের রিসার্চ ল্যাব রয়েছে সেখানে। তড়িঘড়ি গোটা এলাকা ফাঁকা করে ফেলা হয়। বন্ধ করে দেওয়া হয় এমার্জেন্সি ল্যাব। এমার্জেন্সি ওয়ার্ডের রোগীদের সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হয় নিরাপদ জায়গায়। হাসপাতালের এক জুনিয়র চিকিৎসক জানিয়েছেন, ‘‌ওই মহিলাকে সঙ্গে সঙ্গেই ড.‌ রাজেন্দ্র প্রসাদ সেন্টার ফর অফথালমিক সায়েন্স অফ দ্য ইনস্টিটিউট বিল্ডিংয়ে নিয়ে যাওয়া হয় অস্ত্রোপচারের জন্য। সেখানে নবজাতকের জন্ম দেন ওই মহিলা।’‌ 
আগুন লাগার খবর পেয়েই ঘটনাস্থলে পৌঁছায় দমকলের ৩৪টি ইঞ্জিন। লোকজনকে সরিয়ে শুরু হয় উদ্ধার কাজ। অল্প সময়ের ভেতর আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে দমকল বাহিনী। আগ্নিকাণ্ডে কেউ হতাহত হয়নি। ‌‌

জনপ্রিয়

Back To Top