আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ প্লাস্টিক দূষণ সম্পর্কে সরকার ও সাধারণ মানুষকে দীর্ঘদিন ধরেই সচেতন করে যাচ্ছেন পরিবেশবিদরা। স্থানে স্থানে প্লাস্টিক নিষিদ্ধ করা ছাড়া সরকারে তরফে অন্য কোনও পদক্ষেপ চোখে পড়ছে না। ‌প্লাস্টিক জাতীয় বর্জ্যকে কীভাবে অন্য কাজে ব্যবহার করা যায়, তা নিয়ে চিন্তিত খোদ প্রশাসনও। সেই জায়গায় দাঁড়িয়ে কর্নাটকের কোটুমাচাগি গ্রামের ভিরেশ নেবালি নামে এক কৃষক দীর্ঘ একবছর ধরে যা করে যাচ্ছেন, তা অবশ্যই প্রশংসার যোগ্য। রাস্তাঘাট, আশেপাশের দোকান, হোটেল থেকে প্লাস্টিক কুড়িয়ে এনে সেগুলিকে বৃক্ষরোপণের কাজে ব্যবহার করছেন তিনি। প্লাস্টিকের বোতল, ব্যাগ কুড়িয়ে এনে সেগুলি পরিষ্কার করেন আগে। তারপর তাতে মাটি ভরে বিভিন্ন গাছের চারা রোপণ করছেন তিনি দীর্ঘ এক বছর ধরে। 
ভিরেশ নেগালি সংবাদমাধ্যমে জানিয়েছেন, ‘‌আমি প্রত্যেকদিন সকালে বিভিন্ন দোকানে ডাস্টবিন রেখে আসি। সন্ধ্যেবেলা গিয়ে ওই প্লাস্টিক ভর্তি ডাস্টবিন বাড়ি নিয়ে আসি। তারপর ওই প্লাস্টিকগুলো পরিষ্কার করে তাতে গাছের চারা রোপণ করি। ওই গাছের চারাগুলো বিভিন্ন অনুষ্ঠানে পাঠাই। কিছু বিক্রি করি। কোনও প্লাস্টিক জাতীয় বস্তু আমি ফেলি না। কোনও না কোনও কাজে ঠিক ব্যবহার করি। আমাদের এখন থেকেই সচেতন হতে হবে। যখন এই কাজ শুরু করেছিলাম, তখন সব দোকানদাররা আমায় নিয়ে হাসাহাসি করত। এখন সম্মান করে।’‌   

জনপ্রিয়

Back To Top