আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ ‌স্কুলের ছাত্রীদের মাথায় উকুন। মাথা পরিষ্কার করতে হোস্টেলের জল প্রচুর পরিমানে খরচ করছে ছাত্রীরা। এই অভিযোগে স্কুলে দু’‌জন নাপিতকে ডেকে ১৫০ জন ছাত্রীকে জোর জবরদস্তি চুল কেটে দিলেন ওই স্কুলের প্রধান শিক্ষিকা। চুল কাটানোর জন্য প্রত্যেক ছাত্রীর থেকে ২৫ টাকা করে নেওয়া হয়েছে বলেও অভিযোগ। ঘটনাটি ঘটে তেলঙ্গনার মেদক জেলার একটি গুরুকুল স্কুলে। মঙ্গলবার ওই ছাত্রীদের পরিবার স্কুলে বিক্ষোভ দেখানোর পরই বিষয়টি সামনে আসে। 
স্কুলের প্রধান কে অরুণা সংবাদমাধ্যমে জানিয়েছেন, ‘‌হোস্টেলে জলের অভাব। আর তার মধ্যেই হোস্টেলের ছাত্রীরা মাথা ধুতে অনেক জল অপচয় করছে। আমি জানতে পেরেছি, বেশিরভাগ ছাত্রীর মাথায় উকুন আছে। অনেকে চর্মরোগেও ভুগছে। হোস্টেল পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন ও রোগমুক্ত করতেই এই সিদ্ধান্ত নিয়েছি। এবিষয়ে স্কুল কর্তৃপক্ষ ছাত্রীদের সম্মতিও নিয়েছিল।’‌
সন্তানদের মাথার চুল জোর করে কেটে দেওয়ায় স্কুলের প্রধান শিক্ষিকার বিরুদ্ধে অভিযোগ করেছেন অভিভাবকরা। অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্তের নির্দেশ দিয়েছে জেলা প্রশাসন।    ‌‌

জনপ্রিয়

Back To Top