আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ বুধবার দিল্লি বিমানবন্দরে আটক করা হল প্রাক্তন আইএএস অফিসার শাহ ফয়জলকে। সূত্রের খবর, দিল্লি বিমানবন্দর থেকে ইস্তানবুল যাচ্ছিলেন তিনি। সেখানেই তাঁকে আটক করে শ্রীনগর পাঠিয়ে দেওয়া হয়। শুধু তাই নয়, নাগরিক নিরাপত্তা আইনের ধারায় তাঁকে গৃহবন্দীও করা হয়। 
রাজ্যের প্রাক্তন আইএএস অফিসার তথা জম্মু-কাশ্মীর পিপল্‌স মুভমেন্ট পার্টির নেতা শাহ ফয়জল। গতকালই কাশ্মীরের বর্তমান পরিস্থিতি নিয়ে সরব হয়েছিলেন শাহ ফয়জল। টুইটারে তিনি লিখেছিলেন, ‘‌কাশ্মীরে শান্তি ফিরিয়ে আনতে চাই অহিংস আন্দোলন।’‌ 
কাশ্মীরে ৩৭০ ধারা বাতিল ও জম্মু–কাশ্মীরকে দুটি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে ভাগ করে দেওয়ার কেন্দ্রীয় সিদ্ধান্তের আগে কড়া নিরাপত্তার ঘেরোটোপে ঢাকা হয় উপত্যকাকে। কার্যত তখন থেকেই সেখানে চলছে ব্ল্যাক-‌আউট। কাজ করছে হাতে-‌গোনা কয়েকটি মোবাইল ফোন। ইন্টারনেট সংযোগও বিচ্ছিন্ন। বিভিন্ন এলাকায় জারি নিষেধাজ্ঞা। ফলে উপত্যকার কোনও খবর পৌঁছোচ্ছে না গোটা দেশের কাছে। এমনই অবস্থায় সেখানকার পরিস্থিতি সম্পর্কে জানা যাচ্ছিল কাশ্মীরের এই রাজনীতিকের ফেসবুক পোস্ট থেকে। তিনি ফেসবুকে লিখেছিলেন, ‘‌ঠিক কী ঘটেছে কাশ্মীরে, তা নিয়ে অনেকেরই ধারণা এখনও পর্যন্ত ঝাপসা। কয়েক ঘণ্টা আগেও কাজ করছিল রেডিও। বেশির ভাগ মানুষ দূরদর্শন দেখছেন। তবে জাতীয় সংবাদমাধ্যমকে খবর সংগ্রহে প্রত্যন্ত এলাকায় যেতে দেওয়া হচ্ছে না। ‌আবদুল্লা ও মেহবুবাকে গৃহবন্দি করা হয়েছিল। সোমবার রাতে তঁাদের গ্রেপ্তার করা হয়। ওমর আবদুল্লা, মেহবুবা মুফতি, পিপল্‌স কনফারেন্স নেতা সাজ্জাদ লোনের কাছে পৌঁছোনো যাচ্ছে না। তঁাদের কাছে কোনও বার্তাও পাঠানো যাচ্ছে না।‌’‌

জনপ্রিয়

Back To Top