রাজীব চক্রবর্তী
দিল্লি, ১১ জুলাই

আবারও রাহুল গান্ধীর তোপের মুখে পড়লেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। প্রধানমন্ত্রীর মন্তব্য তুলে ধরে তাঁকে বিঁধলেন কংগ্রেস নেতা। হিন্দিতে টুইট করে মোদিকে ‘‌অসত্যাগ্রহী’‌ আখ্যা দিলেন রাহুল।
শুক্রবার ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে মধ্যপ্রদেশের রেওয়া এলাকায় এক সৌরবিদ্যুৎ কেন্দ্রের উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী। ৭৫০ মেগাওয়াট ক্ষমতাসম্পন্ন সৌরবিদ্যুৎ কেন্দ্রের উদ্বোধন করে মোদি বলেছেন, ‘‌আজ এক ইতিহাস তৈরি হল। এতদিন রেওয়া নর্মদা নদী ও সাদা বাঘের জন্য খ্যাত ছিল। এবার থেকে আরও একটা কারণে রেওয়া খ্যাত হল। তা হল, এখানকার এশিয়ার বৃহত্তম সৌরবিদ্যুৎ কেন্দ্র।’‌ হিন্দিতে এই কথাগুলোই টুইট করেছেন প্রধানমন্ত্রী। 
মোদি রেওয়া সৌরবিদ্যুৎ কেন্দ্রটিকে ‘এশিয়ার বৃহত্তম সৌরবিদ্যুৎ কেন্দ্র’ বললেও আসলে ‌কিন্তু তা নয়। কর্ণাটকের পাভাগাড়া পার্কে ২০০০ মেগাওয়াট ক্ষমতাসম্পন্ন সৌরবিদ্যুৎ কেন্দ্র তৈরি হয়েছে দু’‌‌বছর আগেই। এই ‘‌অসত্য’‌ কথাটিই তুলে ধরে রাহুল শনিবার প্রধানমন্ত্রীর টুইটের জবাবে লিখেছেন, ‘অসত্যাগ্রহী’। যার অর্থ, এমন এক ব্যক্তি যিনি অসত্যে বিশ্বাসী। টুইটটি প্রধানমন্ত্রীর দপ্তরকে ট্যাগও করেছেন তিনি। রাজনৈতিক মহলের ব্যাখ্যা, ‘এশিয়ার বৃহত্তম সৌরবিদ্যুৎ প্রকল্প’ শব্দবন্ধে আপত্তি তুলে নাম না করে প্রধানমন্ত্রীকেই ‘অসত্যাগ্রহী’ বলেছেন তিনি। প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধেই তোপ দেগেছেন রাহুল। কারণ প্রধানমন্ত্রীই ওই দাবি করেছিলেন।
রাহুলের টুইটের পরে কর্ণাটকের কংগ্রেস প্রধান ডি কে শিবকুমারও মোদিকে আক্রমণ করেছেন। তাঁর কথায়, ‘‌রেওয়ার ৭৫০ মেগাওয়াট ক্ষমতাসম্পন্ন সৌরবিদ্যুৎ কেন্দ্র এশিয়ার মধ্যে সবথেকে বড় কেন্দ্র, প্রধানমন্ত্রীর এই দাবি কতটা সত্যি, সেটা কেন্দ্রীয় বিদ্যুৎমন্ত্রীকে জবাব দিতে হবে। তার কারণ দু’বছর আগেই কর্ণাটকের পাভাগাড়া পার্কে ২০০০ মেগাওয়াট ক্ষমতাসম্পন্ন সৌরবিদ্যুৎ কেন্দ্র তৈরি হয়েছে।’‌ প্রশ্ন উঠেছে, দু’‌হাজার মেগাওয়াটের সৌরবিদ্যুৎ প্রকল্প থাকা সত্ত্বেও কোন যুক্তিতে প্রধানমন্ত্রী রেওয়ার ৭৫০ মেগাওয়াটের প্রকল্পটিকে এশিয়ার বৃহত্তম বলে ঘোষণা করলেন? এ বিষয়ে এখনও কোনও সাফাই দেয়নি প্রধানমন্ত্রীর দপ্তর।‌‌

জনপ্রিয়

Back To Top