আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ আমেরিকার হুমকি দেওয়ার অনেক আগে থেকেই কোভিড–১৯–এ সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত দেশগুলোকে পর্যায়ক্রমে হাইড্রোক্সিক্লোরোকুইন রপ্তানির সিদ্ধান্ত নিয়েছিল ভারত। এমনটাই দাবি করছে কেন্দ্র। একটি সর্বভারতীয়  দৈনিকে এই সংবাদ প্রকাশিত হয়েছে। সেখানে কেন্দ্র আরও দাবি করেছে, দেশের সব থেকে খারাপ সময় আসলেও এখানে পর্যাপ্ত পরিমাণে এই ওষুধ রয়েছে।
সোমবার মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প হুমকি দেন ভারত অবিলম্বে হাইড্রোক্সিক্লোরোকুইন রপ্তানি না শুরু করলে প্রত্যাঘাত করা হবে। তারপরই ভিজে বেড়ালের মতো মুখ নীচু করে আমেরিকায় ওষুধ রপ্তানির উপর নিষেধাজ্ঞা আংশিক প্রত্যাহার করে কেন্দ্র। যা নিয়ে ঝড় বয়ে যায় জাতীয় রাজনীতিতে।
কিন্তু এনপিপিএ চেয়ারপার্সন নেতৃত্বাধীন প্যানেলের দাবি, রপ্তানির সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার করা হয়েছিল রবিবারই। এবং দেশীয় কোম্পানিগুলোর কাছে এতো বেশি পরিমাণে হাইড্রোক্সিক্লোরোকুইন আছে যে ঘরোয়া চাহিদা পূরণ করলেও আন্তর্জাতিক চাহিদা অনেকাংশে মেটাতে পারবে ভারত। ভারতে হাইড্রোক্সিক্লোরোকুইন তৈরি করে জাইডাস কোম্পানির ইপকা ল্যাব।
সরকারি তথ্য অনুযায়ী, দেশ অনায়াসে এক কোটি ট্যাবলেট রপ্তানি করতে পারে। এনপিপিএ–র প্যানেলের সঙ্গে এই তথ্য যাচাই হয়ে গেলেই সেটা বিদেশ মন্ত্রকে পাঠানো হবে। এনপিপিএ–ই বিদেশ মন্ত্রককে বলে দেবে কতটা ট্যাবলেট রপ্তানি করা সম্ভব। তারপর বিদেশ মন্ত্রক সংক্রমণের হার দেখে দেশে দেশে সেগুলো রপ্তানি করবে। একইভাবে প্যারাসিটামল ট্যাবলেটও রপ্তানি করবে কেন্দ্রীয় সরকার। 

জনপ্রিয়

Back To Top