আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ ‌অযোধ্যা মামলার রায় প্রকাশের পর প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈকে কোনও চিঠি দেননি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। এরকমই একটি চিঠির ছবি ঘুরছে বাংলাদেশের সোশ্যাল মিডিয়ায়, দাবি ভারতের বিদেশমন্ত্রকের। একটি বিবৃতি প্রকাশ করে দেশের বিদেশমন্ত্রক সাফ জানিয়ে দিল, বাংলাদেশের সোশ্যাল মিডিয়ায় যে প্রধানমন্ত্রীকে নরেন্দ্র মোদির যে চিঠি নিয়ে আলোচনা হচ্ছে, সেটি ভুয়ো। বুধবার রাতে ভারতের বিদেশমন্ত্রকের আধিকারিক রবিশ কুমার টুইটারে একটি টুইট করে লেখেন, ‘‌ভারত–বাংলাদেশের মধ্যে বিভেদ তৈরির চেষ্টা করা হচ্ছে। ইচ্ছাকৃত ভাবে এই ভুয়ো এবং বিদ্বেষপূর্ণ খবর ছড়ানো হচ্ছে। আমরা এই ঘটনার তীব্র নিন্দা করছি।’ বিষয়টি নিয়ে ঢাকা হাইকমিশনারের পক্ষ থেকেও একটি টুইট করে জানানো হয়, ‌বিদ্বেষ ছড়ানোর উদ্দেশ্যেই এই কাজ করা হচ্ছে। ওই চিঠিটি ভুয়ো। মিথ্যাপ্রচার করা হচ্ছে। 
গত শনিবার অযোধ্যা মামলায় রায় দেয় শীর্ষ আদালত। তারপরেই প্রধান বিচারপতিকে লেখা প্রধানমন্ত্রীর ওই চিঠি ভাইরাল হয়ে যায় সোশ্যাল মিডিয়ায়। সেই চিঠিতে প্রধান বিচারপতির উদ্দেশ্যে প্রধানমন্ত্রী লিখেছেন, এই ঐতিহাসিক রায়ের জন্যেই হিন্দুরা আপনাকে মনে রাখবে। চিঠিটির সত্যতা যাচাই না করেই চিঠিটি নিয়ে কাঁটাছেড়া শুরু করে বাংলাদেশের সংবাদমাধ্যমগুলি। তারপরেই সামনে আসে ভারতের বিদেশমন্ত্রকের বিবৃতি।

জনপ্রিয়

Back To Top