আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ সোমবার মধ্যরাতে পাশ হয়েছে নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল। আর তা নিয়েই দিনভর বিক্ষোভে উত্তাল অসম সহ উত্তর–পূর্বের একাধিক রাজ্য। এদিকে ঠিক তার উল্টো ছবিও ধরা পড়েছে রাজধানীতে। পাকিস্তান থেকে পালিয়ে আসা হিন্দু অনুপ্রবেশকারীদের একটি অংশ যাঁরা দিল্লির মজনু–কা–টিলা অঞ্চলে বসবাস করেন, তাঁদের মধ্যে দেখা গেল সেই উচ্ছ্বাস। সেই আনন্দ। লোকসভায় বিল পাশ হওয়ার খবর ছড়িয়ে পড়তেই সকাল থেকে তাঁদের চোখে মুখে আনন্দ। ঢাক–ঢোল পিটিয়ে, মিস্টি বিতরণ করে সেই উচ্ছ্বাসের বহিঃপ্রকাশ ঘটছে রাজধানীর গলি ঘুচিতে। 
পাকিস্তান, আফগানিস্তান এবং বাংলাদেশে ধর্মীয় নিপীড়ণের শিকার অমুসলিম অনুপ্রবেশকারীদের ভারতের স্থায়ী নাগরিকত্ব দেওয়ার কথা বলা হয়েছে নাগরিকত্ব সংশোধনী বিলে। তা নিয়ে শুরু থেকেই প্রতিবাদ জানিয়ে আসছে উত্তর-পূর্বের রাজ্যগুলির। আন্দোলনের জেরে গুয়াহাটিতে সমস্ত সরকারি অফিস বন্ধ রাখা হয়েছে। বন্ধ রয়েছে স্কুল-কলেজও। আন্দোলনের জেরে ট্রেন চলাচলও ব্যাহত হয়েছে। লোকসভায় সংখ্যাগরিষ্ঠের সমর্থনে নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল পাশ হওয়াতেই বিক্ষোভ চরমে উঠেছে। অসম, অরুণাচল প্রদেশ, মেঘালয়, মিজোরাম এবং ত্রিপুরা, এই ছয় রাজ্যে এদিন ভোর ৫টা থেকে বিকাল ৪টে পর্যন্ত, টানা ১১ ঘণ্টা একজোটে বনধে্র ডাক দিয়েছে নর্থ ইস্ট স্টুডেন্টস অর্গানাইজেশন (নেসো)। নেসোর চেয়ারম্যান সংবাদমাধ্যমে বলেন, ‘নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল পাশ হয়ে গেলে উত্তর–পূর্বের রাজ্যগুলিতে বাংলাদেশ থেকে বেআইনি অনুপ্রবেশকারীরা দলে দলে এসে ভিড় করবেন। এতে সাধারণ মানুষ এত দিন ধরে যে দাবি–দাওয়া জানিয়ে আসছেন, তাকে অসম্মান জানানো হবে।’‌‌

জনপ্রিয়

Back To Top