আজকাল ওয়েবডেস্ক: কেন্দ্রের নতুন কৃষি আইনের প্রতিবাদে পাঞ্জাবে চলা কৃষক ধর্মঘটের ফলে ৩০ সেপ্টেম্বর থেকে লুধিয়ানার ড্রাই পোর্ট এবং রেললাইনে আটকে রয়েছে কয়েক হাজার কোটি টাকার পণ্য। এর ফলে সরবরাহ বিঘ্নিত হচ্ছে। এমনটাই অভিযোগ করেছেন কাস্টমস্‌ হাউস এজেন্টস্‌ সংগঠনের সভাপতি রাজেশ বর্মা। উত্তর ভারতের সব থেকে বড় ড্রাই পোর্ট লুধিয়ানা। সেখানে প্রতি মাসে ২০,০০০ কন্টেনার ওঠানামা করে। রাজেশ বললেন, রপ্তানির জন্য নির্দিষ্ট ৪৫০০ কোটি টাকার পণ্যের কিছ রেললাইনের উপর এবং কিছু বন্দরে আটকে রয়েছে। প্রায় ৭৫০০ কোটি টাকার পণ্য, কাঁচা মাল লুধিয়ানায় আমদানিও করা যাচ্ছে না। আমদানি এবং রপ্তানি মিলিয়ে প্রায় ১৩০০ কোটি টাকার পণ্য সরবরাহ থমকে আছে। যার ফলস্বরূপ হোশিয়ারি, সাইকেল, চার প্রক্রিয়াকরণ, চামড়া, তুলোর মতো পাঞ্জাবের ছোট এবং ক্ষুদ্র শিল্প প্রায় বন্ধ হওয়ার মুখে। সরকারেরও প্রায় ৩০০ কোটি টাকার রাজস্ব ক্ষতি হয়েছে। টানা ধর্মঘটের ফলে আমদানি এবং রপ্তানিকারীরা তাই  পাঞ্জাবের বদলে দিল্লি, রাজস্থানে মুখ ফেরাতে শুরু করেছেন। দশেরা বা দিওয়ালির আগেও ধর্মঘট না উঠলে অনেক ছোট ব্যবসা চিরতে থেমে যাবে, আশঙ্কা রাজেশের।
ছবি:‌ এএনআই 

জনপ্রিয়

Back To Top