আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ মেয়েদের হাতে মোবাইল দেওয়া একেবারেই উচিত নয়। দিলেই গণ্ডগোল। এই মোবাইল দেওয়ার কারণেই ধর্ষণ বাড়ছে। এ কথা যিনি বললেন, তিনি নিজেও এক মহিলা। আবার মহিলা কমিশনের এক সদস্য। যোগীর রাজ্যের।
এই বিতর্কিত মন্তব্যটি করেন উত্তরপ্রদেশে মহিলা কমিশনের এক সদস্য মীনা কুমারী। আলিগড়ে এক মহিলার অভিযোগের শুনানি প্রসঙ্গে তাঁকে জিজ্ঞেস করা হয়, উত্তরপ্রদেশে যৌন হেনস্থা এত বাড়ছে কেন?‌ জবাবে তিনি বললেন, ‘‌মেয়েরা ছেলেদের সঙ্গে কথা বলে। তার পর পালিয়ে যায়।’‌ এখানেই থামেননি মীনা। মেয়েদের মায়েদের ওপরও দায় চাপালেন। বললেন, মায়ের খেয়াল রাখে না। তাই যৌন হয়রানির ঘটনা বাড়ছে।
রাজ্যের মহিলা কমিশন অবশ্য স্পষ্ট জানিয়েছে, মীনার এই মন্তব্যের সঙ্গে তারা সহমত নয়। মহিলা কমিশনের ভাইস প্রেসিডেন্ট অঞ্জু চৌধুরি জানালেন, মেয়েদের মোবাইল থেকে বঞ্চিত করলেই তাদের ধর্ষণ কমবে না। ‘‌বরং তাদের হাতে মোবাইল দেব না, একথা বলার বদলে, বলা উচিত ছিল, তাদের মোবাইল চালনা শেখাবো। তারা যাতে অচেনা লোকজনের সঙ্গে কথা না বলে, সেই নিয়ে সতর্ক করা উচিত।’‌ 
পরে কুমারীও বলেন, তিনি নাকি আদতে বলতে চাইছিলেন, গ্রামের মেয়েরা মোবাইল ফোন চালনা করতে পারে না। অচেনা লোকজনের সঙ্গে বন্ধুত্ব করে, তার পর পালিয়ে যায়। 

জনপ্রিয়

Back To Top