আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ ভারতে দ্রুত হারে বাড়ছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। মঙ্গলবার সকাল পর্যন্ত দেশে আক্রান্তের সংখ্যা ৪,৪২১ হয়ে গেছে। মৃত অন্তত ১১৪ জন। পরিসংখ্যান বলছে, প্রতি ৪ দিন অন্তর দ্বিগুণ হচ্ছে আক্রান্তের সংখ্যা। বিশেষজ্ঞদের মতে, আক্রান্তের সংখ্যা বৃদ্ধির হার যদি এই গতিতে বাড়তে থাকে তবে এক সপ্তাহ পর আক্রান্তের সংখ্যা ১৭ হাজার ছোঁবে। যদি তাই হয় তবে যথেষ্ট উদ্বেগের মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।
প্রসঙ্গত, ১৪ এপ্রিল পর্যন্ত দেশজুড়ে লকডাউন। কিন্তু লকডাউনের মধ্যেও আক্রান্তের সংখ্যা ক্রমবর্ধমান। যে হারে আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে তাতে মনে করা হচ্ছে, আগামী ৮ দিনের মধ্যে আক্রান্তের সংখ্যা ১৭ হাজার ছোঁবে। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রকের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, ১৫ থেকে ২০ মার্চ আক্রান্তের সংখ্যা দ্বিগুণ হয়েছিল পাঁচদিন অন্তর। কিন্তু ২০ থেকে ২৩ মার্চ গতি বাড়িয়ে সংখ্যাটা দ্বিগুণ হয় তিনদিনের মাথায়। তবে ২৩ থেকে ২৯ মার্চের মধ্যে আক্রান্তের সংখ্যা বৃদ্ধির হার একটু শ্লথ হয়েছিল। সেইসময় ছয়দিন অন্তর সংখ্যাটা দ্বিগুণ হয়েছিল। যা আশার আলো দেখাচ্ছিল চিকিৎসকদের। কিন্তু দেখা যাচ্ছে, আবার গতি বাড়িয়ে ২৯ মার্চ থেকে ৬ এপ্রিল আক্রান্তের সংখ্যা চারদিন অন্তর দ্বিগুণ হয়েছে। এটাই উদ্বেগজনক মনে করছেন চিকিৎসকরা। 
তবে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রক জানিয়েছে, তবলিঘি জামাতের ধর্মীয় অনুষ্ঠানের যোগ না থাকলে দেশের করোনা আক্রান্তের সংখ্যা দ্বিগুণ বৃদ্ধির হার গত এক সপ্তাহে অনেকটাই কম হত। সোমবার স্বাস্থ্যমন্ত্রকের আধিকারিকরা সাংবাদিক সম্মেলনে ঘোষণা করেছেন, নতুন করে আক্রান্তের সংখ্যা দেখে জানা গিয়েছে, দেশে মোট করোনা আক্রান্তের এক তৃতীয়াংশ তবলিঘি জামাতের সঙ্গে যুক্ত। মন্ত্রক ইঙ্গিত দিয়েছে, স্থানীয় গোষ্ঠী সংক্রমণ দেখা যাচ্ছে দেশের বেশ কিছু জায়গায়। সুতরাং আক্রান্তের সংখ্যা এই হারে বৃদ্ধি পেলে ধরেই নিতে হবে যে ভারতে কিছু জায়গায় গোষ্ঠী সংক্রমণ শুরু হয়ে গিয়েছে।

জনপ্রিয়

Back To Top