আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ দেশে রোজ লাফিয়ে বাড়ছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। মৃত্যুও জারি। এবার এই নিয়ে ১০ রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে বৈঠকে বসলেন প্রধানমন্ত্রী মোদি। বৈঠকে রয়েছেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জিও। 
দেশে মোট করোনা আক্রান্তের ৮০ শতাংশই রয়েছে ১০টি রাজ্যে। সেই রাজ্যগুলো হল মহারাষ্ট্র, অন্ধ্রপ্রদেশ, কর্নাটক, পশ্চিমবঙ্গ, পাঞ্জাব, বিহার, তামিলনাড়ু, উত্তরপ্রদেশ, গুজরাট, তেলঙ্গানা। এই রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীদের সঙ্গে মঙ্গলবার বৈঠকে বসলেন মোদি। বললেন, ‘‌এই ১০ রাজ্যে করোনাকে হারানো গেলে গোটা দেশ জয়ী হবে।’‌
মৃত্যুর হার এই প্রথম কমেছে দেশে। সেই নিয়ে বৈঠকে সন্তোষ প্রকাশ করলেন। প্রধানমন্ত্রী এও বললেন, ‘‌করোনা মোকাবিলায় আমরা সঠিক পথে চলছি। ঐক্যবদ্ধভাবে আমরা করোনা রুখে দেব।’‌ এর পর করোনা মোকাবিলার কয়েকটি দাওয়াই বাতলে দিলেন মোদি। তাঁর মতে, ‘‌এখনও পর্যন্ত আমাদের যা অভিজ্ঞতা, তা থেকে কয়েকটি বিষয় স্পষ্ট। করোনাকে নিয়ন্ত্রণ করতে হলে রোগীদের সন্ধান করা, তাঁদের ওপর নজর রাখা এবং কোয়ারেন্টাইন করা প্রয়োজন। এই তিনটে বিষয়ই সবচেয়ে কার্যকর অস্ত্র।’‌ 
তিনি এও বললেন, বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন যে যদি করোনা সংক্রমিত হওয়ার ৭২ ঘণ্টার মধ্যে রোগীদের চিহ্নিত করা হয় তবে সেই রোগীর থেকে সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা অনেকটাই কমে যায়। পাশাপাশি  এক জনের সংক্রমণ ধরা পড়লে ৭২ ঘণ্টার মধ্যে পরিবারের বাকিদের করোনা পরীক্ষা করাতে হবে। মোদির পরামর্শ, কনটেনমেন্ট জোনগুলিকে সম্পূর্ণ আলাদা রাখতে হবে। বিহার, বাংলা, গুজরাট, তেলঙ্গানায় করোনা পরীক্ষা বাড়াতে হবে। দিল্লিতে এই নির্দিষ্ট রোডম্যাপ মেনে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনা হয়েছ।
বৈঠকে বারবার প্রধানমন্ত্রী ঐক্যবদ্ধভাবে করোনা মোকাবিলার বার্তা দিয়েছেন রাজ্যগুলোকে। করোনা মোকাবিলা করতে এই নিয়ে সপ্তমবার রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীদের সঙ্গে বৈঠকে বসলেন তিনি। 
কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রক মঙ্গলবার সকালে জানিয়েছে, গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ৫৩ হাজার ৬০১ জন। এখন মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ২২ লক্ষ ৬৮ হাজার ৬৭৫। দেশে ২৪ ঘণ্টায় করোনায় মৃত্যু ৮৭১। এখন পর্যন্ত দেশে করোনায় মারা গেছেন ৪৫ হাজার ২৫৭ জন। মোট আক্রান্তের নিরিখে দুনিয়ায় তৃতীয় স্থানে রয়েছে ভারত। আমেরিকা এবং ব্রাজিলের পরেই। 

জনপ্রিয়

Back To Top