আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ করোনাভাইরাস সংক্রমণ রুখতে ২১ দিনের জন্য লকডাউন ঘোষণা করেছে কেন্দ্রীয় সরকার। সব ধরনের গণপরিবহন বন্ধ। বন্ধ দোকান, বাজার, কলকারখানা। আর এর ফলে সব থেকে ক্ষতি হচ্ছে দিনমজুর এবং দরিদ্রদের। দুবছরের ছেলেকে কাঁধে নিয়েগত দুদিন ধরে প্রায় অনাহারে হেঁটেই উত্তর প্রদেশে নিজেদের গ্রামের উদ্দেশ্যে ফিরছেন বান্টি নামে এক দিনমজুর, তাঁর স্ত্রী এবং পরিবারের অন্যরা। শুধু বান্টিই নয়, লকডাউনে আর্থিক ক্ষতির মুখে পড়েছেন সারা দেশের দিনমজুর, ভাগচাষি, চা শ্রমিকদের মতো মানুষরা যাঁদের রোজগার প্রতিদিনের পারিশ্রমিকের উপরই নির্ভরশীল। সব কিছু বন্ধ হয়ে যাওয়ার ফলে কাজ হারিয়েছেন এই সব মানুষরা। কবে এই সমস্যা মিটবে সেই দিশা দিতে পারছে না সরকার। আর এই সব দরিদ্রদের পক্ষে টানা ২১ দিনের খাবার, ওষুধ মজুত করার সামর্থ্যও নেই। বিশেষজ্ঞ মহলের মতে, কেন্দ্রের অনেক আগেই উচিত ছিল দেশের সার্বিক পরিস্থিতির কথা চিন্তা করে প্রথম থেকেই কড়া পদক্ষেপ নেওয়া। কারণ ইওরোপ বা চীনের মতো অর্থনৈতিকভাবে উন্নত দেশগুলোর তুলনায় ভারতে যেহেতু গরিব মানুষের সংখ্যা অনেক বেশি, সেহেতু তাঁদের বিষয়ে সবার আগে প্রাধান্য দেওয়া উচিত ছিল কেন্দ্রের। যা কার্যত এড়িয়ে গিয়েছে মোদি সরকার।   
ছবি:‌ এএনআই  ‌‌‌

জনপ্রিয়

Back To Top