আজকাল ওয়েবডেস্ক: বিহারের মুজাফফরপুরের বাগমতী নদীর ধারে একটি মৃত শিশুর পড়ে থাকার ছবি এখন ভাইরাল সোশ্যাল মিডিয়ায়। ফিরে এসেছে তুরস্কের ভূমধ্যসাগর তীরে উদ্বাস্তু সমস্যার সময় দেখা আয়লান কুর্দির কথা। মনে পড়েছে সেই মর্মান্তিক দৃশ্য। তবে এবারে কোনও নৌকাডুবি বা দুর্ঘটনার শিকার হয়ে ওই শিশুটির এই অবস্থা হয়নি। কারণটা একেবারে অন্য। প্রথমে আশঙ্কা করা হয়েছিল, ওই শিশুটির মৃত্যু হয়েছে বিহারের বন্যায়। ছবিটি সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়তেই নিন্দার ঝড় ওঠে নীতীশের সরকারের বিরুদ্ধে। ছবিটি শেয়ার করে আরজেডি নিশানা করেছ রাজ্য সরকারকে। পাশাপাশি তদন্তও শুরু হয়। এক সংবাদমাধ্যম দাবি করছে, শিশুটির মৃত্যু বন্যায় হয়নি। বরং তার মৃত্যুর পেছনে রয়েছে অন্য ঘটনা। তাঁকে নদীতে ভাসিয়ে দিয়েছিল তার মা। জেলা জনসংযোগ দপ্তরের এক আধিকারিকের ওই সংবাদমাধ্যমে জানিয়েছেন, ঘটনাটি ঘটেছে মুজাফফরপুরের মিনাপুর গ্রামে। স্বামীর সঙ্গে বচসার জেরে এক মহিলা তাঁর সন্তানদের বাগমতী নদীতে ভাসিয়ে দেন। ঘটনাটি দেখতে পেয়েই স্থানীয়রা ওই মহিলার এক সন্তানকে বাঁচাতে পারলেও বাঁচাতে পারেননি ওই শিশুটিকে। 
যদিও, ঘটনার নির্মমতা নিয়ে তাতে উদ্বেগ কিছু কমেনি। বরং শিশুদের উপর অত্যাচারের ঘটনায় সোচ্চার হয়েছে নেটিজেনরা।

জনপ্রিয়

Back To Top