আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ কর দেওয়া এখন আরও সহজ হবে। আর করদাতা তাঁর যোগ্য সম্মান পাবেন। গোটা প্রক্রিয়াতেই আরও স্বচ্ছতা আনছে মোদি সরকার। কর ব্যবস্থার সংস্কারের জন্য নতুন প্রকল্প ‘‌ট্রান্সপারেন্ট ট্যাক্সেশন– অনারিং দ্য অনেস্ট’‌ (‌স্বচ্ছ করপ্রদান– সৎ করদাতাকে সম্মান)‌ প্রকল্পের উদ্বোধন করলেন মোদি। 
প্রকল্প সূচনা করে প্রাধনমন্ত্রী একটি বিষয়েই জোর দিলেন, করপ্রদানে স্বচ্ছতা আনার মূল উদ্দেশ্য হল করদাতাদের সম্মান। তাই প্রকল্পের নামকরণও সেটা মাথায় রেখেই হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকালে তিনি বললেন, ‘‌দেশের সৎ করদাতারা সবসময়ই দেশ গঠনে একটি বড় ভূমিকা পালন করেছেন। আজ এই নতুন সুযোগ–সুবিধাগুলো ওই সৎ করদাতাদের সম্মান জানানোর জন্য়ই, তাঁদের জন্যই সরকারের পক্ষ থেকে এই উদ্যোগ নেওয়া হল।’‌
তিনি আয়কর দপ্তরের কর্মীদের শুভকামনা জানাতেও ভোলেননি। বললেন, ‘‌এই নতুন ব্যবস্থার মাধ্যমে কর দেওয়ার জটিলতা আরও কমবে। করদাতাদের সুবিধা হবে এই প্ল্যাটফর্মে। করদাতাদের সুবিধার্থে সেন্ট্রাল বোর্ড অফ ডিরেক্টর ট্যাক্সেস আরও পদক্ষেপ নেবে। এই পদক্ষেপ ভারতের উন্নয়নের ক্ষেত্রে একটি বড় পদক্ষেপ। কেন্দ্রের এই পদক্ষেপে কর ব্যবস্থায় স্বচ্ছতা আসবে।’‌
প্রধানমন্ত্রীর মতে, ভারতের কর ব্যবস্থার পুনর্গঠনের দরকার ছিল। করোনার এই বিপদ মুহূর্তেও দেশে রেকর্ড বিদেশি বিনিয়োগ এসেছে। তাই কর ব্যবস্থার সংস্কার দরকার। তিনি একথাও বললেন, যে সৎ করদাতারা দেশে দীর্ঘদিন ধরে বঞ্চিত হচ্ছেন। ‘‌নতুন প্রকল্পের জেরে মিনিমাম গভর্নমেন্ট, ম্যাক্সিমাম গভর্ন্যান্স— আমাদের প্রতিশ্রুতি আরও মজবুত হবে। নাগরিকদের জীবনে সরকারের হস্তক্ষেপ কমবে।’‌
বুধবার কেন্দ্রীয় অর্থ মন্ত্রক জানায় যে, আয়কর দফতর গত কয়েক বছরে বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ সংস্কার করেছে। কর্পোরেট করের হার ৩০ থেকে ২২ শতাংশে নামানো হয়েছে। নতুন কারখানার ক্ষেত্রে কর কমিয়ে করা হয়েছে ১৫ শতাংশ। কর ব্যবস্থায় স্বচ্ছতা আনতেও একগুচ্ছ পদক্ষেপ করা হয়েছে।

জনপ্রিয়

Back To Top