আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ ফেসবুকে একটি পোস্ট। সেই নিয়ে মঙ্গলবার রাতে আগুন জ্বলে ওঠে বেঙ্গালুরুতে। ভাঙচুর হয় দু’‌টি থানা এবং কংগ্রেস বিধায়ক অখণ্ড শ্রীনিবাস মূর্তির বাড়িতে। আগুন লাগায় উন্মত্ত জনতা। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে গুলি চালায় পুলিশ। মারা গেছেন ৩ জন।
পোস্টটি করেছিলেন মূর্তির ভাগ্নে নবীন। তাঁকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। শোনা গেছে, নবীনের এই পোস্ট সংখ্যালঘুদের আঘাত করেছে। তাই উত্তেজনা ছড়ায়। বেঙ্গালুরুর পুলকেশীনগরের বিধায়ক মূর্তি বুঝতেই পারছেন না, ওই পোস্টের জন্য কেন তাঁর বাড়িতে আগুন ধরানো হল?‌ নবীন তাঁর ভাগ্নে বলে?‌ বিধায়কের প্রশ্ন, ‘‌আমি কী করেছি?‌ কী ভুল করেছি?‌ আমি ভুল করলে থানা বা সংবাদ মাধ্যমের কাছে যান। আমি কিছুই করিনি। তাই এই হামলা খুব দুঃখজনক।’‌  
মঙ্গলবার রাতে হামলার সময় মূর্তির পরিবারের লোকজন মন্দিরে জন্মাষ্টমীর পুজো দিতে গেছিলেন। তাই প্রাণে বেঁচে গেছিলেন। নয়তো কী হত, ভেবেই শিউরে উঠছেন তিনি। বললেন, ‘‌আশপাশের স্কুটার, গাড়িগুলো পর্যন্ত পুড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। আমার বোনের ছেলে পোস্ট করেছে। সে যেই হোক, পুলিশ তাকে শাস্তি দেবে। আমার বাড়ি কেন হামলা করা হবে? আমার বাড়ির সামনেটা পুড়ে ছাই। সেখানে কিছু নেই আর।‌’ বিধায়কের কথায়, নিজের বিধানসভা কেন্দ্রে সকলের সঙ্গে ভাইয়ের মতো মেশেন। তাই এই হামলা তাঁর কাছে স্বপ্নাতীত। 
বেশ কিছু রাজনীতিক প্রশ্ন তুলেছেন হামলার উদ্দেশ্য নিয়ে। অনেকেই বলেছেন, আগে থেকে পরিকল্পনা করেই হামলা হয়েছে। এ দাবি এখন করলেন মূর্তিও। বললেন, ‘‌১০০ শতাংশ ছক কষেই হয়েছে হামলা।’‌

জনপ্রিয়

Back To Top