আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ স্বঘোষিত ধর্মগুরু আশারাম বাপু এবার ক্ষমা করার আবেদন করলেন। নাবালিকাকে ধর্ষণের দায়ে গত ২৫ এপ্রিল যোধপুর আদালত আশারামকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের নির্দেশ দেয়। মঙ্গলবার সেই যাবজ্জীবন কারাদণ্ড কমিয়ে আনতে রাজস্থানের রাজ্যপালের কাছে ক্ষমার আবেদন করেছেন। পাঁচ বছর আগে আশ্রমের মধ্যে ধর্ষণ করার অভিযোগে আশারামকে দোষী সাব্যস্ত করে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের রায় দেয় আদালত। তার প্রেক্ষিতেই এই ক্ষমার আবেদন পাঠিয়েছে আসারাম বলে মনে করা হচ্ছে। 
যোধপুর আদালতের রায়ের বিরুদ্ধে ২ জুলাই আশারাম চ্যালেঞ্জ করে হাইকোর্টে মামলা দায়ের করার ইচ্ছাপ্রকাশ করেন। কিন্তু এখনও হাইকোর্ট সেই মামলার শুনানির দিন ধার্য করেনি। উপায় না দেখে এখন এই স্বঘোষিত ধর্মগুরু এবার রাজস্থানের রাজ্যপালের কাছে ক্ষমা করার আবেদন করেছে। রাজ্যপাল সেই আবেদন পাওয়ার পর তা স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকে পাঠিয়ে দিয়েছেন। কিন্তু কি লেখা রয়েছে সেই ক্ষমার আবেদনে?‌ সেখানে আশারাম লিখেছে, তার যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের যে শাস্তি দেওয়া হয়েছে তা কমিয়ে দেওয়া হোক। বয়সের দিকটা বিবেচনা করে এই কঠোর শাস্তি থেকে তাকে খানিকটা রেহাই দেওয়া হোক। যোধপুর সেন্ট্রাল জেলের সুপার কৈলাশ ত্রিবেদী এই ক্ষমার আবেদনের কথা স্বীকার করেছেন। প্রসঙ্গত, ২০১৩ সালের ১৫ আগস্ট রাতে নিজের আশ্রমের ঘরে নাবালিকাকে ডেকে পাঠিয়ে ধর্ষণ করে বলে অভিযোগ উঠেছিল। যে অভিযোগে দোষী সাব্যস্ত হয়ে এখন আশারাম শ্রীঘরে।  ‌‌

জনপ্রিয়

Back To Top