আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ করোনার পরীক্ষা নীতিতে বড়সড় বদল আনতে চলেছে কেন্দ্রীয় সরকার। আগামী কয়েকদিনে ব্যাপক হারে করোনার পরীক্ষা চালু করা হতে পারে বলে সূত্রের খবর। লকডাউনের মেয়াদ বাড়ানো হবে কিনা, তা নিয়ে এখনও কোনও সিদ্ধান্ত নেয়নি কেন্দ্রীয় সরকার। তবে শনিবার ফের রাজ্যে মুখ্যমন্ত্রীদের সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে বৈঠকের পরই সেই সিদ্ধান্ত নেওয়া হতে পারে বলে খবর মিলেছে। সব মিলিয়ে করোনা মোকাবিলায় চলতি সপ্তাহই ‘‌নির্ণায়ক সপ্তাহ’। মনে করছে কেন্দ্র। বিশেষজ্ঞ মহলের অভিযোগ, ভারতে পর্যাপ্ত হারে করোনা পরীক্ষা হচ্ছে না। সূত্র মারফত খবর, এবিষয়ে কেন্দ্রের বক্তব্য, ‘‌করোনা ব্যাপকহারে ছড়ালে মৃত্যুর সংখ্যা আরও বাড়ত। দেশে ইনফ্লুয়েঞ্জা মত জ্বরের হারও বেশ কম। কিন্তু, মুখের কথা বা অনুমানে কাজ হবে না। প্রয়োজন পরীক্ষার। তাই চলতি সপ্তাহেই ব্যাপকহারে করোনা পরীক্ষার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। সেই রিপোর্টের ভিত্তিতেই চূড়ান্ত হবে লকডাউনের মেয়াদ বৃদ্ধির বিষয়টি।’ তবে করোনা পরীক্ষার নিয়মাবলী একই রয়েছে। জ্বর, শ্বাসকষ্ট হলে, বিদেশ বা ভিন রাজ্য ফেরত ব্যক্তিদের ১৪ দিন কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে।‌ করোনাভাইরাস মোকাবিলায় আইসিএমআর দ্রুত পরীক্ষা করার দিকেই বারবার সবুজ সংকেত দিচ্ছে। অর্থাৎ দ্রুত শনাক্তকরণের মাধ্যমে করোনা সংক্রমিতদের চিহ্নিত করা হবে। দেশের করোনাভাইরাসের হটস্পট হিসেবে যেসব এলাকা চিহ্নিত হয়েছে সেই এলাকায় এই পদ্ধতিতে পরীক্ষা হবে। দ্রুত অ্যান্টিবডি পরীক্ষার মাধ্যমে করোনা আক্রান্তদের চিহ্নিত করতে খরচও অনেকটা কমে যাবে বলেই মনে করা হচ্ছে। আইসিএমআরের পক্ষে জানানো হয়েছে যে, দেশে এখনও পর্যন্ত ১,১৪,০১৫–র বেশি নমুনা পরীক্ষা হয়েছে। সরকারি সূত্র জানাচ্ছে যে, প্রত্যেকদিন ৪০ হাজার করে করোনা পরীক্ষার লক্ষ্যমাত্রা স্থির করা হয়েছে। কর্মসূচি বাস্তবায়ণে ভুবনেশ্বর ও নয়েদায় দু’টি উচ্চ ক্ষমতাসম্পন্ন মেশিন বসানো হয়েছে। যেখানে রোজ ১,৩০০–১,৪০০ নমুনা পরীক্ষা করা সম্ভব। এই ধরনের আরও ১২ মেশিন আগামী তিন সপ্তাহের মধ্যে বসছে বলে জানানো হয়েছে স্বাস্থ্যমন্ত্রকের তরফে। মন্ত্রক জানাচ্ছে যে, আগ্রা, মুম্বই ভিলাওয়াড়া সহ করোনা হটস্পট এলাকাগুলোতে সংক্রমণ অনেকটাই নিয়ন্ত্রণে আনা সম্ভব হয়েছে।
প্রসঙ্গত, ইতিমধ্যেই ঝুঁকি না নিয়ে চলতি লকডাউনের মেয়াদ বৃদ্ধির ব্যাপারে ভাবনাচিন্তা করছে কেন্দ্র। ২৫ মার্চ শুরু হওয়া ২১ দিনের লকডাউন আজ ১৪ দিনে পড়ল। তার মেয়াদ রয়েছে ১৪ এপ্রিল পর্যন্ত। এটা লকডাউনের তৃতীয় সপ্তাহ চলছে। ভারতে করোনায় মৃত্যু বেড়ে ১৪৯। একদিনে করোনায় মৃত্যু বাড়ল ২৫। করোনা আক্রান্তর সংখ্যা বেড়ে ৫ হাজার ১৯৪। একদিনে দেশজুড়ে আক্রান্ত ৪০৫ জন। সুস্থ হয়েছেন ৪০২ জন। মহারাষ্ট্রে আক্রান্তর সংখ্যা ১ হাজার ১৮। যদিও বেশ কিছু অসুস্থ মানুষ সুস্থ হয়েও উঠেছেন। 

জনপ্রিয়

Back To Top