আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ কোভিডে মারা গেছে ছোটা রাজন। গতকাল দুপুর থেকেই খবরটা ছড়িয়ে পড়েছিল গোটা দেশে। যদিও দিল্লি এইমস এই খবর অস্বীকার করেছে। একই সুর দিল্লি পুলিশের গলাতেও।
দিল্লি পুলিশ ও এইমস আধিকারিকরা জানিয়েছেন, তিনি চিকিৎসাধীন রয়েছেন। এপ্রিলের শেষে ছোটা রাজনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। 
২০১৫ সালে গ্রেপ্তার হওয়ার পরেই তিহাল জেলে বন্দি রয়েছে আন্ডারওয়ার্ল্ড ডন ছোটা রাজন। ২৭ এপ্রিল তিহার জেল মারফত জানা যায়, কোভিডে আক্রান্ত ছোটা রাজন। আদালতের নির্দেশে ছোটা রাজনকে ২৬ এপ্রিল ভর্তি করা হয় দিল্লি এইমসে। হাসপাতালের তরফে জানানো হয়েছে, ‘‌ছোটা রাজনের শারীরিক অবস্থা অত্যন্ত সঙ্কটজনক এবং তিনি এই মুহূর্তে আইসিইইতে ভর্তি রয়েছেন ৷ তিনি এখনও জীবিতই আছেন।’‌
সাংবাদিক জ্যোতির্ময় দে খুনে ২০১৮ সালে দোষী সাব্যস্ত করা হয় ছোটা রাজনকে। ২০১১ সালে সাংবাদিক জে দে’‌কে খুন করায় ছোটা রাজন ওরফে রাজেন্দ্র নিকালজে। 
খুন, অপহরণ সহ তার বিরুদ্ধে ৭০ টি মামলা ঝুলছিল। সব মামলার তদন্ত করছিল সিবিআই। বিশেষ আদালতে বিচার চলছিল। ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে চলত শুনানি। গত মাসে কোভিড আক্রান্ত হওয়ায় রাজন শুনানিতে উপস্থিত থাকতে পারেনি। 
 

জনপ্রিয়

Back To Top