আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ সাত বছরের বালিকাকে যৌন হেনস্থার অভিযোগ মুম্বইয়ের স্কুলে। এখনও পর্যন্ত অপরাধীকে শনাক্ত করা যায়নি। চলছে তদন্ত।  প্রাথমিক তদন্তে জানা গিয়েছে, স্কুলের প্রায় সব কর্মীই পুরুষ।‌ কিন্তু স্কুলের সিসিটিভি ফুটেজ খতিয়ে দেখে কোনও অস্বাভাবিক কিছু নজরে পড়েনি এখনও পর্যন্ত। বালিকা জানিয়েছে, তার সঙ্গে এই ঘটনা ঘটেছে স্কুলের শৌচালয়ে। কিন্তু দুপুর ১২টা থেকে সন্ধ্যে ৬টা পর্যন্ত স্কুলের দ্বিতীয় তলে কোনও পুরুষের আনাগোনা লক্ষ্য করা যায়নি। মালবানি থানার এসআই জগদেব কালাপদ জানান, ‘‌সিসিটিভি ফুটেজে আমরা দেখেছি ঐ বালিকা নিজের বান্ধবীর সঙ্গে শৌচালয়ে যাচ্ছে। সেখানে কোনওরকম অস্বাভাবিক কোনও ঘটনা চোখে পড়েনি। আমরা আরও তদন্ত চালাচ্ছি।’ বালিকা পুরো ঘটনাটি বর্ণনা করতে সাহস পাচ্ছে না বলে তাঁর মা জানান। কিন্তু সে এইটুকু বলতে পেরেছে, তাকে যৌন হেনস্থা করা হয়েছে ক্রেয়ন পেনসিল দিয়ে। অপরাধীর পেটটা বড় এবং অপরাধীকে চোখের সামনে দেখলে সে চিনতে পারবে।   
ঘটনার পরে প্রথম শ্রেণির এই ছাত্রী বাড়ি এসে নিজের মাকে জানানোর পর তার পরীক্ষা করানো হয়। প্রমাণ পাওয়া যায় যৌন হেনস্থার। ক্ষুব্ধ মা বাবা স্কুল কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথা বলার চেষ্টা করেন। কয়েক ঘণ্টার তর্কের পর পুলিশ তাঁদেরকে আপাতত কোনওরকম বাকবিতণ্ডার থেকে বিরত থাকার জন্য অনুরোধ জানায়। নির্যাতিতা ছাত্রীর মা জানান, স্কুল কর্তৃপক্ষ তাঁদের অভিযোগের ব্যাপারে মুখ খুলছেন না। এই কথা পুলিশকে জানাতে পুলিশ তাঁকে আশ্বস্ত করে জানান, পুলিশ এই বিষয়টিকে খতিয়ে দেখবে।

জনপ্রিয়

Back To Top