আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ কালো জাদু করতে গিয়ে প্রতিবেশীর চার বছরের শিশু কন্যার রক্তপান করার অভিযোগ উঠল ওডিশায়। ঘটনায় চার বছরের ওই শিশু কন্যার মৃত্যুও হয় বলে অভিযোগ পরিবারের। ঘটনাটি ঘটে ওডিশার সুন্দরগড় গ্রামের ঝুমকা গ্রামে। কালাজাদুর অভ্যাসে অভিযুক্ত প্রতিবেশীর বাড়ি থেকেই উদ্ধার হয় শিশুকন্যার দেহ। শিশুটিকে খুন করার পর একটি বাক্সের মধ্যে রেখে দেওয়া হয় বলে জানা গিয়েছে। শিশুটিকে দেহ উদ্ধারের পরই তাকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে মৃত ঘোষণা করে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। শিশুটির গলায় ও পেটে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। রক্তের দাগ মিলেছে। পুলিশ সূত্রে খবর, শনিবার স্কুলে থেকে ফিরে বাড়ির পাশের একটি মাঠে খেলতে গিয়েছিল শিশুটি। সেখান থেকেই নিখোঁজ হয়ে যায় সে। গ্রামবাসীদের মধ্যে গুজবও ছড়ায়, এক ডাইনি নাকি মেয়েকে মেরে তার রক্ত পান করেছে। 
কালাজাদুতে শিশু খুনের খবর মুহূর্তের মধ্যে ছড়িয়ে পড়ে গোটা গ্রামে। তারপরই গ্রামের পরিস্থিতি আরও বিগড়ে যায়। পরিস্থিতি সামাল দিতে পুলিশের ফোর্সও পাঠানো হয়। ইতিমধ্যেই কালাজাদুতে অভিযুক্ত সানিয়া রানি নাথকে আটক করেছে পুলিশ। স্থানীয় ফারুদি থানার অতিরিক্ত এসপি রবি নারায়ণ বাটিক জানিয়েছেন, ‘‌গ্রামের মানুষ রেগে গিয়ে সানিয়ে রানি নাথের পরিবারের দু’‌জনকে আটকে রেখেছিল। তাঁদের উদ্ধার করে পুলিশ হেপাজতে রাখা হয়েছে। অভিযুক্ত সানিয়া জানিয়েছেন, এই ঘটনার পেছনে তাঁর কোনও হাত নেই। নবীন সাহা নামের আরেকজন অভিযুক্তের দিকেই আঙুল তুলেছেন তিনি। পুলিশ জানিয়েছে, ‘‌তদন্ত জারি আছে। এই মুহূর্তে কিছু বলা সম্ভব নয়।’‌    

জনপ্রিয়

Back To Top