আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ মহিলা নিগ্রহ রোখার জন্য মধ্যপ্রদেশে ১৪ দিন ধরে প্রচার চালাচ্ছে শিবরাজ সিং চৌহান সরকার। এ রকম সময়েই রাজ্যে ফের প্রকাশ্যে এল ভয়াবহ এক গণধর্ষণের ঘটনা। উমারিয়া জেলায় ১৩ বছরের এক কিশোরীকে অপহরণ করে গণধর্ষণ করল ন’‌ জন। পাঁচ দিনের মধ্যে দু’‌বার। 
সাত জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। বাকি দু’‌জনের খোঁজ চলছে। ৪ জানুয়ারি কিশোরীকে অপহরণ করে তারই পরিচিত এক যুবক। সেই যুবক এবং তার ছয় বন্ধু দু’‌দিন ধরে গণধর্ষণ করে কিশোরীকে। ৫ জানুয়ারি তাকে ছেড়ে দেয় ওই যুবক। হুমকি দেয়, কাউকে বললে খুন করবে তাকে। 
কিশোরী বাড়ি ফিরে গেলেও কাউকে জানায়নি। পরে ১১ জানুয়ারি ফের অপহরণ করে অভিযুক্ত সাত জনের এক জন। তাকে একটি জঙ্গলে আটকে রাখে। চলে ধর্ষণ। ডেকে আনে আরও দু’‌জনকে। সেই দু’‌জনও কিশোরীকে আগে ধর্ষণ করেছিল। রাস্তার পাশে একটি খাবারের দোকানেও কিশোরীকে আটকে ধর্ষণ করা হয়। 
এর পর তাকে ছেড়ে দেয় ওই তিন জন। তখন দুই ট্রাক চালক তাকে ফের তুলে নিয়ে গিয়ে ধর্ষণ করে। পরের দিন কোনও মতে পালিয়ে নিজের বাড়িতে যায় কিশোরী। থানায় অভিযোগ করে। পুলিশ অভিযুক্তদের ধরে। 
গত ছ’‌দিন ধরে মধ্যপ্রদেশে মহিলা নিগ্রহের ঘটনা বেড়েছে। ৯ জানুয়ারি সিধি জেলায় এক ৪৮ বছরের মহিলার ঘরে জোর করে ঢুকে ধর্ষণ করে এক জন। সাহায্য করে চার জন। মহিলার যৌনাঙ্গে লোহার রড ঢুকিয়ে দেয় অভিযুক্ত। ১১ জানুয়ারি খাণ্ডওয়া জেলায় আর এক কিশোরীকে ধর্ষণ করে খুন করে এক দোকানি। এসবের পর স্বাভাবিকভাবেই রাজ্যে মহিলা নিরাপত্তা প্রশঞনের মুখে পড়েছে। 
 

জনপ্রিয়

Back To Top