আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ ‌পরিস্থিতি অন্যদিকে ঘুরতে পারে, এমন পদক্ষেপ করা ঠিক হবে না। প্রধানমন্ত্রীর লে–লাদাখ সফরের পর বেজিং–এর তরফে দেওয়া হল বার্তা। এদিন শুক্রবার হঠাৎ করেই লাদাখে হাজির হন নরেন্দ্র মোদি। প্রকৃত সীমান্তরেখায় পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে। তারপরও চীনা বিদেশমন্ত্রকের মুখপাত্র সংবাদমাধ্যমে বলেন, ভারত ও চীনের মধ্যে আলোচনা এখনও চলছে। সীমান্তে শান্তি বজায় রাখতে সামরিক ও কূটনৈতিক স্তরে লাগাতার বৈঠক চলছে। এই সময়ে দু’‌পক্ষেরই উচিত এমন কোনও পদক্ষেপ না করা যাতে সীমান্তে ফের নতুন করে সমস্যা তৈরি হয়। যদিও প্রধানমন্ত্রীর লাদাখ সফর নিয়ে সরাসরি কোনও বার্তা দেয়নি চীন। গালোয়ানের ঘটনার পর চীনের বিরুদ্ধে একাধিক পদক্ষেপ করেছে ভারত। অর্থনৈতিক পদক্ষেপ হিসেবে ৫৯টি চীনা অ্যাপে দেশে নিষিদ্ধ করেছে কেন্দ্র। পাশাপাশি এদিন প্রধানমন্ত্রী লাদাখে যাওয়া নতুন মাত্রা যোগ করছে বলে মনে করছে কূটনৈতিক মহল। এদিন লাদাখে গিয়ে সেনাদের মনোবল বাড়াতে তাঁদের প্রশংসাও করেন প্রধানমন্ত্রী।

জনপ্রিয়

Back To Top