আজকাল ওয়েবডেস্ক: নিজের কাজ চাপালেন অন্যের ঘাড়ে। অভিনেতা সোনু সুদ নিজের খরচে পরিযায়ী শ্রমিকদের ঘরে ফেরানোর দায়িত্ব নিয়েছেন লকডাউনের শুরু থেকেই। তা বলে দেশের সরকারের প্রতিনিধি হয়ে সোনু সুদের কাঁধে দায়িত্ব চাপাবেন আরও পরিযায়ী শ্রমিকের!‌ এই ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে বিজেপি নেতার সমালোচনা করলেন কংগ্রেস।
১ জুন টুইটারে একটি পোস্ট পড়ে রেওয়ার বিজেপি বিধায়ক ও মধ্যপ্রদেশের প্রাক্তন মন্ত্রী রাজেন্দ্র শুক্লার প্রোফাইল থেকে। তিনি একটি ছবি পোস্ট করেন। মধ্যপ্রদেশের রেওয়া ও সাতনা জেলার যে যে পরিযায়ী শ্রমিকেরা এখনও মুম্বইয়ে আটকে রয়েছেন, তাঁদের একটি তালিকা রয়েছে সে ছবিতে। আর ওপরে লেখা, ‘‌এঁদের বাড়ি পৌঁছে দিতে আমাদের সাহায্য করুন সোনু সুদ।’‌    
‘‌আপনার পরিযায়ী শ্রমিকেরা কাল বাড়ি পৌঁছে যাবেন। আর আমি যদি কখনও মধ্যপ্রদেশ যাই, তাহলে আমাকে আপনি পোহা খাওয়াবেন তো?‌’‌ রাজেন্দ্র শুক্লার পোস্টের জবাবে উত্তর দিলেন অভিনেতা। রাজেন্দ্র শুক্লা এরপরে জানালেন, ১৮৬ জনের মধ্যে ৫৫ জন নিজের নিজের বাড়ি পৌঁছে গিয়েছেন সোনু সুদের সাহায্যে। 
এই ঘটনা দেখে রাজেন্দ্র শুক্লাকে ট্রোল না করে পারলেন না নেটিজেনরা। সকলেরই এক কথা, কেন্দ্রীয় সরকারের একজন প্রতিনিধি হয়ে বলিউড অভিনেতার কাছ থেকে সাহায্য চাইছেন রাজেন্দ্র শুক্লা। এতই অসহায় তাঁরা!‌ পিছিয়ে থাকলেন না কংগ্রেসও। তারা কটাক্ষ করল মধ্যপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী শিবরাজ সিং চৌহানকে। কংগ্রেস প্রধান অরুণ যাদব টুইটারে পোস্ট করলেন, ‘‌রাজেন্দ্র শুক্লার এই পোস্টের পর মধ্যপ্রদেশের তিক্ত সত্যটি সামনে চলে এল। দেখুন শিবরাজ চৌহান, বিজেপি বিধায়ক ও মধ্যপ্রদেশের প্রাক্তন মন্ত্রী রাজেন্দ্র শুক্লার আপনার সরকারের প্রতি ভরসা নেই। তাই অভিনেতা সোনু সুদের কাছে হাত পাততে হচ্ছে।’ এসবের উত্তরে রাজেন্দ্র শুক্লার জবাব, ‘‌রাজ্য ও কেন্দ্রায় সরকার এখনও লক্ষ লক্ষ পরিযায়ী শ্রমিককে ঘরে ফিরিয়েছে। কিন্তু কংগ্রেসের নেতারা তো বাড়িতে লুকিয়ে রয়েছেন।’‌   

জনপ্রিয়

Back To Top