রাজীব ঘোষ 

কিছুদিন চুপচাপ থাকায় অনেকেই ভেবেছেন নির্ঘাত ভাগাড়ের মাংস খেয়ে অক্কা পেয়েছি! আসলে তক্কে তক্কে ছিলাম ঠিক। চীনেদের সঙ্গে আমাদের কত মিল, ভেতো আর মেছো যুগপৎ। আমাদের নবান্নের মতোই চীনেদের ড্রাগন বোট উৎসব। পদ্মপাতায় মোড়া ভাত, তার কতো বাহার। ইয়াউতচা রেস্তোরাঁয় শেফ রেমন্ড হাতের খেল দেখাচ্ছেন দস্তুরমতো। চীনেদের উৎসব তালিকায় এই ড্রাগন বোট দু' নম্বরে। আমাদের মতোই ঢাক-কাঁসি বাজল, সঙ্গতে ড্রাগন নাচ,ছোউ নাচের চীনে সংস্করণ আর কী! আসলে মন পড়ে রয়েছে স্টিকি রাইসের এটা-সেটার দিকে। জংজি, মানে ওই সুগন্ধী ভাতের ডিমসাম। মোড়া থাকে পদ্মপাতায়। ভাতে যা ইচ্ছে দাও, সবজি-মাছ-মাংস, যেমন আমরাও দিয়ে থাকি।
২০০০ বছরের পুরনো একটা উৎসব, কল্প-গল্প থাকবে বইকি। কবি, দেশপ্রেমী কু ইউয়ান দেশদ্রোহের দায়ে অভিযুক্ত, অপমানে ঝাঁপ দিলেন নদীতে, হইহই করে ড্রাগন-নাও বেয়ে ছুটে এলো মানুষ, মুঠো-মুঠো ভাতের ডাম্পলিং ছুঁড়তে লাগলো, নাহলে মুহূর্তে রাক্ষুসে মাছের দল খেয়ে ফেলত কবির শরীর। সেই থেকে নৌকা বাওয়া আর ডাম্পলিং নিয়ে উৎসব।
রেমন্ড রেঁধেছেন পানিফল আর মাশরুম দিয়ে স্টিকি রাইস,মাশরুমের বদলে মুরগি বা চিংড়ি দিয়েও রেঁধেছেন। ওই পর্যন্ত ঠিক, আসল চমক 
জংজিতে, পদ্মপাতার বদলে গাজর দিয়ে মুড়েছেন। প্রাণহরা তার স্বাদ। বান রুটি যে কায়দায় তৈরি হয় আর কী। নিচে মাস্টার্ড সসের গঙ্গা-যমুনা। গঙ্গা-যমুনা এই কারণেই যে, চীনেদের সাবেক কড়াইয়ে রাঁধা পদের বদলে কিঞ্চিৎ টুইস্ট , ইউরোপীয় ঘরানা ঢুকে পড়ল। রেমন্ড মালয়েশিয়ার মানুষ বলেই বোধকরি সর্ষের ব্যবহারে এত দড়। চমক ক্রিসপি জন ডোরি মাছে, মার্কিনিরা খায়, আমি খাইনি কখনও। বাসা খেয়ে যাদের জিভে চড়া পড়েছে, তাঁরা চমৎকৃত হবেন। বিনস দিয়ে রাঁধা চিংড়ি দিব্য। তবে বিটরুট ফ্রায়েড রাইস সেরা। রেমন্ড গোটা ভারতের ইয়াউতচার হাঁড়ি-হেঁশেলের ভার কেন পেয়েছেন, বুঝতে পারা গেল। মাছ-আর ভাত আছে, বঙ্গবাসী র আর কী লাগে!

জনপ্রিয়

Back To Top