আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ ‌গত এক দশকে মোবাইল ফোন অত্যন্ত সহজলভ্য হয়ে উঠেছে। আর সেই সঙ্গে জনপ্রিয়তা বেড়েছে ‘‌সেলফি’–র। নিজের ছবি নিজেই ক্যামেরাবন্দি করার প্রবণতায় প্রায়শই ঘটছে ভয়াবহ দুর্ঘটনা, প্রাণও হারিয়েছেন অনেকে। সাম্প্রতিক এক গবেষণা বলছে, হাঙরের আক্রমণের তুলনায় সেলফি তুলতে গিয়ে প্রাণহানির সংখ্যা প্রায় পাঁচ গুণ বেশি। ‘‌জার্নাল অব ফ্যামিলি মেডিসিন অ্যান্ড প্রাইমারি কেয়ার’‌–এর তথ্য অনুযায়ী, ২০১১ সালের অক্টোবর থেকে ২০১৭ সালের অক্টোবর পর্যন্ত সারাবিশ্বে অন্তত ২৫৯ জন সেলফি তুলতে গিয়ে মারা গিয়েছেন। আর এই সময়ের মধ্যে হাঙরের হামলায় নিহতের সংখ্যা মাত্র ৫০ জন। পুরুষের তুলনায় সাধারণচ মহিলারাই অনেক বেশি সেলফি তোলেন। তবে কম বয়সি কিশোররা সেলফি তুলতে সবচেয়ে বেশি ঝুঁকি নেন। এই কারণে, নিহতদের মধ্যে চার ভাগের তিন ভাগই হল কম বয়সি যুবক–যুবতীরা। সাধারণত, সেলফি তুলতে গিয়ে জলে পড়ে কিংবা সড়ক দুর্ঘটনায়, উঁচু ভবন থেকে পড়ে এইসব প্রাণহানির ঘটনা ঘটেছে। ভারতের জনসংখ্যা প্রায় ১৩০ কোটি। আর তার মধ্যে ৮০ কোটি মোবাইল ফোন ব্যবহারকারী রয়েছেন। সেলফির কারণে বিশ্বের সবচেয়ে বেশি প্রাণহানিও আবার এদেশেই ঘটে। এখনও পর্যন্ত ভারতেই ১৫৯ জন সেলফি তুলতে গিয়ে মারা গিয়েছেন। অর্থাৎ সারাবিশ্বে সেলফিতে মৃত্যুর অর্ধেকই হয়েছে এদেশে। এর মধ্যে বেশিরভাগ তরুণ–তরুণী সেলফি তোলার সময় ট্রেনের ধাক্কায় বা নৌকাডুবিতে প্রাণ হারিয়েছেন। ইতিমধ্যে দেশের বেশ কয়েকটি স্থানে সেলফি নিষিদ্ধ করা হয়েছে, এর মধ্যে শুধু মুম্বইয়েই রয়েছে এ ধরনের ১৬টি এলাকা। সেলফির কারণে মৃত্যুর ঘটনায় অন্যান্য দেশগুলোর থেকে অনেকটাই এগিয়ে ভারত। আর ভারতের পরে আছে রাশিয়া (১৬ জন), যুক্তরাষ্ট্র (১৪ জন) এবং পাকিস্তান। ‌‌

জনপ্রিয়

Back To Top