আজকাল ওয়েবডেস্ক: আগামী ১৪ তারিখ মকর সংক্রান্তি। সারা দেশের বিভিন্ন প্রান্তে এই দিনটি ধুমধামের সঙ্গেই পালিত হয়ে আসছে প্রাচীন কাল থেকে। মহাভারতেও মাঘী মেলার উল্লেখ পাওয়া যায়। বঙ্গে পৌষ পার্বন, অসমে মাঘ বিহু, পঞ্জাবে লোহ্‌রি–সংক্রান্তি, উত্তরাখণ্ডে ঘুঘুটি, তামিল নাড়ুতে পোঙ্গল, তেলঙ্গানায় পেড্ডা পান্ডুগা, বিভিন্ন প্রদেশে রকমারি নাম হলেও, এই দিন আসলে সূর্যদেবের পুজো করে নতুন ফসল ঘরে তোলার দিন। নতুন ধান, তিল, গুড় দিয়ে রকমারি লোভনীয় পদ তৈরির দিন।

বাঙালিরা তো নতুন গুড়ের পিঠেপুলি, পায়েস করবেনই। একবার ট্রাই করে দেখুন অন্য রাজ্যের পদগুলিও।
পুরণ পুলি—ছোলার ডাল ভিজিয়ে নিয়ে তারপর কুকারে সিদ্ধ করুন। সিদ্ধ ডালের জল ঝরিয়ে নিয়ে জলটা আলাদা সরিয়ে রাখুন। এরপর কড়ায় ঘি গরম করে তাতে মৌরি গুঁড়ো, এলাচ গুঁড়ো, আদা গুঁড়ো এবং ডাল দিয়ে পুর তৈরি করে ভালো করে চটকে নিন। এরপর ময়দা মেখে মন্ডটি প্রায় ২০ মিনিট ঢেকে রাখুন। তারপর অল্প একটু পুর নিয়ে একটি একটি করে লেচির মধ্যে দিয়ে বেলে নিন।  ঘি বা তেলে ভেজে গরমগরম পরিবেশন করুন।


নিরামিশ পোঙ্গল—মুগডাল কুকারে ভেজে নিন সুগন্ধ বেরনো পর্যন্ত। এরপর তাতে চাল দিয়ে ধুয়ে নিন। তারপর জল, আদা, নুন, দিয়ে সিদ্ধ করুন। সিদ্ধ চাল–ডালের মিশ্রন চটকে নিন। কড়ায় ঘি গরম করে গোটা জিরে, হিং, কারি পাতা, লঙ্কা, গোলমরিচ ফোড়ন দিন। চাইলে কাজুবাদাম দিতে পারেন। এরপর ফোড়নের মধ্যে চাল–ডালের মিশ্রন ঢেলে দিয়ে ঢিমে আঁচে কিছুক্ষণ রান্না করুন। তৈরি হয়ে গেল পোঙ্গল।
পোকা মিঠোই—বাসমতি চালের গুঁড়ো কড়ায় সুগন্ধ না বেরনো পর্যন্ত ভাজুন। আগুন থেকে নামিয়ে তাতে মেশান মরিচগুঁড়ো। এরপর কড়ায় গুড়ের রস তৈরি করে সেটা মরিচ মেশানো চালের গুঁড়ো ঢেলে বলের আকারে গড়ে নিলেই তৈরি পোকা মিঠোই।
 

জনপ্রিয়

Back To Top