আজকাল ওয়েবডেস্ক: ঋতুস্রাব সমস্যা নয়। কিন্তু একটা স্বাভাবিক জৈবিক প্রক্রিয়ার একাধিক পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া দুশ্চিন্তায় ফেলে মেয়েদের। যেমন ঋতুস্রাবের চক্র অনিয়মিত হলেই শারীরিক সমস্যা তো দেখা দেয়ই, এমনকি ভবিষ্যতে গর্ভধারণ নিয়েও টেনশনে থাকেন বহু মেয়েরা। চিকিৎসকদের মতে, শরীরে হরমোনের ভারসাম্য ঠিক না থাকলেই ঋতুস্রাবের নানা সমস্যা দেখা দেয়। 

 

কী কী পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া দেখা দেয়! 

 

১. নিয়মিত না হওয়া। কখনও একমাসে দু'বার। কখনও আবার দু'মাসে একবার। 

২. অসহ্য পেটে যন্ত্রণা। 

৩. মেজাজ খিটখিটে হয়ে যাওয়া। 

৪. খাবারে অরুচি। 

৫. মাথা এবং পায়ে যন্ত্রণা। 

৬. বমি বমি ভাব। 

 

মুক্তির উপায়! 

 

১. যোগাসন: অনিয়মিত ঋতুস্রাবের কারণে অনেক সময় ব্লাড ক্লড বের হওয়ার সময় তলপেটে এবং কোমরে যন্ত্রণা হয়। পিরিয়ড শুরু হওয়ার আগে পায়েও যন্ত্রণা হয় অনেকের। এর জন্য নিয়মিত এক্সারসাইজের পরামর্শ দিচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা। প্রয়োজনে বাড়িতেই যোগাসন এবং মেডিটেশন করতে পারেন। এর ফলে ঋতুস্রাবের সময় পেটের যন্ত্রণা থেকে মুক্তি পাবেন। 

 

২. অ্যালোভেরা জুস: পিরিয়ড সংক্রান্ত যাবতীয় সমস্যা মেটাতে মোক্ষম দাওয়াই হল অ্যালোভেরা জুস। কখনও আবার অ্যালোভেরা জেলের সঙ্গে মধূ মিশিয়ে খালি পেটে খেলেও সমস্যা থেকে রেহাই পাবেন। 

 

৩. আদা: অনিয়মিত ঋতুস্রাবের সমস্যা থেকে রেহাই পেতে চোখ বুঝে ভরসা রাখুন আদায়। কুচিকুচি করে কেটে, এক চা চামচ আদা সেদ্ধ করুন। তার সঙ্গে মিশিয়ে নিন সামান্য চিনি। দুপুরে খাবার পর এটি খেলেই ঋতুস্রাবের চক্র স্বাভাবিক থাকবে। 

 

৪. জিরে: রাতে শোবার আগে এক কাপ জলে দু চা চামচ জিরে ভিজিয়ে রাখুন। সকালে খালি পেটে এই জল খেলে ওজন কমবে, হরমোনের ভারসাম্য ঠিক থাকবে, এমনকি পিরিয়ডের সময় পেটের যন্ত্রণা থেকেও মুক্তি দেবে। 

 

৫. পেঁপে: অনিয়মিত ঋতুস্রাবের যাবতীয় সমস্যা মেটাতে বিশেষজ্ঞরা পেঁপে খাওয়ার পরামর্শ দেন। কাঁচা পেঁপের রস, বা পাকা পেঁপে নিয়মিত খেলে শরীরের বহু সমস্যার সমাধান হয়। পিরিয়ডের চক্রও স্বাভাবিক থাকে। তবে গর্ভধারণের সম্ভবনা থাকলে পাকা পেঁপে খেতে নিষেধ করছেন পুষ্টিবিদরা। 

 

৬. হলুদ: অনিয়মিত ঋতুস্রাবের সমস্যার চটজলদি সমাধান চাইলে নিয়মিত খান হলুদ মেশানো দুধ। তাতে অল্প পরিমাণে মধুও মেশাতে পারেন। তবে হলুদের পরিমাণ যেন বেশি না হয়। নিয়মিত এই দুধ খেলে তলপেটের যন্ত্রণা থেকে মুক্তি পাবেন।

জনপ্রিয়

Back To Top