আজকালের প্রতিবেদন: প্রাক্তন মিস ইন্ডিয়া উষসী সেনগুপ্তর ওপর হামলার ঘটনার পরেই প্রাথমিক তদন্তের ভিত্তিতে চারু মার্কেট থানার সাব–ইনস্পেক্টর পীযূষকুমার বলকে সাসপেন্ড করা হল। এছাড়াও ভবানীপুর থানার সাব–ইনস্পেক্টর মেনন মজুমদার এবং ময়দান থানার সহকারী সাব–ইনস্পেক্টর পার্থ চ্যাটার্জিকে শো‌কজ করা হয়েছে। এদিকে, সেদিনের ঘটনায় ধৃতদের পুলিশ হেফাজতের নির্দেশ দিল আদালত। উদ্ধার হয়েছে ১টি স্কুটি। আরও কয়েকটি বাইকের খেঁাজ করছে পুলিশ। পুলিশের তৎপরতায় দোষীরা ধরা পড়েছে। সেজন্য ফেসবুকে কলকাতা পুলিশকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন উষসী। কলকাতা পুলিশের সাইবার ক্রাইমের অতিরিক্ত উপনগরপাল অপরাজিতা রাইকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন। তিনি বলেছেন, ‘‌ঘটনাটি হেনস্থার। তবে আমার সঙ্গে শ্লীলতাহানির ঘটনা ঘটেনি। আমার চালককে মারধর করা হয়েছিল। আমি তার প্রতিবাদ করেছিলাম।’
চারু মার্কেট থানা এলাকায় তঁার ওপর সোমবার রাতে হামলা চালানো হয়। এরপরই বিষয়টি তিনি ফেসবুক প্রোফাইলে লেখেন। চাঞ্চল্য দেখা যায়। তদন্তে নেমে পুলিশ ৭ জনকে গ্রেপ্তার করেছে। ধৃতদের পক্ষে আইনজীবী গৌরকান্তি সোম এদের সম্পর্কে বলেছেন, যে–‌ধারা দেওয়া হয়েছে তা প্রযোজ্য নয়। এরা সকলেই ছাত্র। পুলিশ স্বতঃপ্রণোদিত হয়ে মামলা শুরু করেছে। যার ওপরে আক্রমণ হয়েছে তিনি নামী ব্যক্তিত্ব। অন্য দিকে, সরকারপক্ষের আইনজীবীর বক্তব্য, এদের গড় বয়স ১৯ থেকে ২০। এরা সবাই বখাটে ছেলে। ধৃতদের নাম শেখ ওয়াসিম, আসিফ খান, শেখ রোহিত, ফারদিন খান, শেখ সাবির আলি, শেখ গনি, শেখ ইমরান আলি। এদের বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩৪১, ৩২৩, ৩৫৪, ৪২৭ এবং ৩৪ ধারায় মামলা শুরু হয়েছে। এই ঘটনায় আর কেউ জড়িত কি না, খতিয়ে দেখা হচ্ছে।‌‌

জনপ্রিয়

Back To Top