আজকালের প্রতিবেদন
একসঙ্গে দশ–‌দশটা পুজোর ছবি নিয়ে কলকাতাসহ রাজ্যের সিনেমা হলগুলো খুলে গেছে। প্রায় রেকর্ড তৈরি করেই এই করোন আবহে বুধবার মুক্তি পেল ৯টি বাংলা ছবি। মাল্টিপ্লেক্স–‌সহ সব সিনেমা হলেই এখন নতুন ছবি। কোনও কোনও সিঙ্গল স্ক্রিন হলে চারটি শো–‌এ চারটি নতুন ছবিও চলছে। বেশ কয়েকটি ছবির প্রিমিয়ারও হল এদিন। সর্বত্রই স্বাস্থ্যবিধি মানা হচ্ছে যথাযথ। হই হই করে এতগুলো ছবি মুক্তি পেলেও এখনও দর্শক সংখ্যা খুব বেশি নয়। একাধিক সিনেমা হল মালিকের বক্তব্য, পুজো নিয়ে নানান নিষেধাজ্ঞা জারি হওয়ার প্রভাব পড়েছে সিনেমা হলে। পুজো দেখায় যত ভিড় হয়, তার একটা অংশ প্রতি বছরই আসে সিনেমা হলে। কিন্তু পুজো দেখতে যদি লোকজন সেভাবে না আসেন, তাহলে সিনেমা হলেও ততটা ভিড় হবে না। তবুও আশাবাদী সকলেই। সবে পঞ্চমী এল। সপ্তমী থেকে প্রচুর দর্শক আসবেন বলেই মনে করছেন সবাই। নবীনা সিনেমার কর্ণধার নবীন চৌখানি বললেন, এই করোনা আবহে যতজন দর্শক এসেছেন, সেটাই আশার আলো দেখাচ্ছে। তিনি বললেন, অগ্রিম বুকিংও হচ্ছে। এখানে চলছে ‘‌ড্রাকুলা স্যর’‌ ও ‘‌রক্তরহস্য’‌, এই দুটি ছবি বুধবারই মুক্তি পেল। এছাড়াও এদিন মুক্তি পেয়েছে ‘‌সাহেবের কাটলেট’‌, ‘‌গুলদস্তা’‌, ‘‌চলো পটল তুলি’‌, ‘‌দুধপিঠের গাছ’‌, ‘‌লাভ স্টোরি’‌, ‘‌এস ও এস কলকাতা’‌ ও ‘‌শিরোনাম’‌। বিজলি সিনেমার ম্যানেজার সৌমেন গাঙ্গুলি বললেন, প্রথম দিন লোকজন তো একটু কম হবেই। এতদিনের অনভ্যেস কাটিয়ে মানুষ আসছেন। মনে মনে একটু ভয় তো আছেই। তবে স্যানিটাইজেশন, স্বাস্থ্যবিধি মানা হচ্ছে দেখে দর্শকরা ভরসা পাচ্ছেন। সপ্তমী থেকে আরও ভিড় হবে বলেই তাঁর আশা। একই কথা ভাবছেন সব হল কর্তৃপক্ষই।‌

জনপ্রিয়

Back To Top