আজকালের প্রতিবেদন
ইস্ট–‌ওয়েস্ট মেট্রোর জন্য দেশের গভীরতম ভেন্টিলেশন শ্যাফট তৈরি হল কলকাতায়। স্ট্র্যান্ড রোডের ধারে। হুগলি নদীর পাশে। গভীরতা ৪৩.৫ মিটার। উচ্চতায় ১৫ তলা বাড়ির সমান। কংক্রিটের তৈরি‌। ভেতরের ব্যাস ১০.৩ মিটার। নির্মাণকারী সংস্থা অ্যাফকনস। অ্যাফকনসের প্রজেক্ট ম্যানেজার সত্যনারায়ণ কানোয়ার বলেন, ‘‌এই শ্যাফটটি দেশের গভীরতম।’‌ এর মাধ্যমে মেট্রোর সুড়ঙ্গে টাটকা বাতাস সরবরাহের সঙ্গে ভেতরের দূষিত বাতাস যেমন বের করে আনা হবে তেমনি আপৎকালীন প্রয়োজনে এখান থেকে যাত্রীদেরও বাইরে বের করে আনা হবে। সিঁড়ি তৈরি করা হচ্ছে। হুগলি নদী থেকে এই শ্যাফটটির দূরত্ব ৫০ মিটার। এরকম আরেকটি শ্যাফট তৈরি হবে রাজা সুবোধ মল্লিক স্কোয়্যারের কাছে। যা অন্য একটি সংস্থা তৈরি করছে।
হাওড়া স্টেশন থেকে সুড়ঙ্গ বেরিয়ে এসে গঙ্গার জলস্তরের ৩৭ মিটার নীচ দিয়ে এসেছে। সুড়ঙ্গের সঙ্গে সামঞ্জস্য রাখতেই শ্যাফটটি এত গভীর করে তৈরি করা হয়েছে। এর মাধ্যমে হাওড়া স্টেশন থেকে মহাকরণ স্টেশন পর্যন্ত সুড়ঙ্গের মধ্যে টাটকা বাতাস সরবরাহ এবং দূষিত বাতাস বের করে আনা হবে। এর আগে শ্যাফট তৈরির সময় নদীর জল ঢুকে কাজ বন্ধ হয়ে যায়। চক্র রেলে সমস্যাও তৈরি হয়েছিল। লকডাউনের জন্য মাঝে কাজ বন্ধ থাকলেও শুরু হওয়ার পর দ্রুত তা এগিয়ে নিয়ে গেছেন ইস্ট–‌ওয়েস্ট মেট্রো কর্তৃপক্ষ।‌‌

জনপ্রিয়

Back To Top