আজকালের প্রতিবেদন‌ 
দিল্লি, ২১ সেপ্টেম্বর

দেরিতে হলেও তৃণমূল ও রাজ্য সরকারের দাবি মেনে নিল কেন্দ্রীয় শিক্ষা মন্ত্রক৷ পিছিয়ে গেল নেট (‌ন্যাশনাল এলিজিবিলিটি টেস্ট)‌। দুর্গাপুজোর সময় বাংলায় কোনও ইউজিসি–‌এনইটি পরীক্ষা নেওয়া হবে না৷ সোমবার এ কথা জানিয়েছেন কেন্দ্রীয় শিক্ষামন্ত্রী রমেশ পোখরিয়াল নিশঙ্ক। পুজোর পরে পরীক্ষার পরিবর্তিত সূচি জানানো হবে।
এর আগে নিটের পরীক্ষা সূচি জারি করেছিল এনটিএ (‌ন্যাশনাল টেস্টিং এজেন্সি)‌। সূচি অনুযায়ী, ২১, ২২ ও ২৩ অক্টোবর পরীক্ষা হওয়ার কথা। ওই সময় দুর্গাপুজো। শুধু তাই নয়, ২১ থেকে ২৩ অক্টোবর পঞ্চমী, ষষ্ঠী ও সপ্তমী। কেন্দ্রীয় সরকারের কাছে এই সিদ্ধান্তের আপত্তি জানায় রাজ্য সরকার। পরীক্ষাসূচি বদলের আর্জি জানানো হয়।  এনটিএ–‌কে চিঠি লেখেন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চ্যাটার্জি। তৃণমূলের প্রবীণ সাংসদ সৌগত রায় ও দীনেশ ত্রিবেদী শিক্ষামন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করে দাবি জানান। পশ্চিমবঙ্গে দুর্গাপুজোর গুরুত্ব বিস্তারিতভাবে কেন্দ্রীয় মন্ত্রীকে বোঝান সৌগত ও দীনেশ। দুর্গাপুজোর মধ্যে নিটের মতো গুরুত্বপূর্ণ পরীক্ষার সূচির বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দেন যুব তৃণমূল সভাপতি ও সাংসদ অভিষেক ব্যানার্জি। টুইটে তিনি লিখেছেন, ‘‌এ রাজ্যের মানুষের আবেগ এবং সংস্কৃতির সঙ্গে কেন্দ্রের কোনও যোগ নেই। বাঙালির আবেগকে মর্যাদা দিতে জানে না তারা৷ সেই কারণেই বাঙালির সবচেয়ে বড় উৎসব দুর্গাপুজোর সময় নিট পরীক্ষার সূচি প্রকাশ করেছে কেন্দ্রীয় সরকার।’‌ রবিবার লোকসভার জিরো আওয়ারে বিষয়টি উত্থাপন করেছিলেন দীনেশ। এরপর সোমবার রমেশ পোখরিয়ালের সঙ্গে দেখা করার পর সাংসদ দীনেশ ত্রিবেদী জানান, ‘‌কেন্দ্রীয় শিক্ষামন্ত্রী রাজ্যের অনুরোধ মেনে নিয়েছেন। তিনি পুজোর সময় পরীক্ষা স্থগিত রাখার আশ্বাস দিয়েছেন। পুজোর পরে নতুন সূচি জানানো হবে।’‌‌

জনপ্রিয়

Back To Top