আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ নির্বাচনী ইস্তেহার তৈরির জন্য সাধারণ মানুষের মতামত চাইছে বিজেপি। সেই উদ্দেশেই ‘লক্ষ্য সোনার বাংলা’ কর্মসূচির সূচনা করলেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডা। বৃহস্পতিবার কলকাতার হেস্টিংসে বিজেপি দপ্তর থেকে এই কর্মসূচির সূচনা করেন তিনি।                               
বাংলার জনগণ কী চায়?‌ সরাসরি মানুষের কাছ থেকেই পরামর্শ নিতে চায় বঙ্গ বিজেপি। সেই লক্ষ্যে রাজ্যের ২৯৪ টি বিধানসভা কেন্দ্রে ছুটে বেড়াবে ২৯৪ টি ডিজিটাল মোবাইল ভ্যান বা এলইডি রথ। তাতে থাকবে ‘সাজেশনস ড্রপ বক্স’। যাতে নিবাচনী ইস্তেহার সম্পর্কে সাধারণ মানুষ নিজেদের মতামত জানাতে পারবেন। রাজ্যজুড়ে থাকবে ৩০ হাজার ড্রপবক্স। পরামর্শ দেওয়ার জন্য প্রতিটি বিধানসভা কেন্দ্রে অন্তত ১০০ টি করে ড্রপবাক্স থাকবে। যার মধ্যে ৫০ টি ড্রপবক্স যাবে বাড়ি বাড়ি জনতার মতামত জানতে। পরামর্শ জানানো যাবে মিসড কল এবং হোয়াটসঅ্যাপের মাধ্যমেও।

মিসড কল দিতে পারবেন ৯৭২৭২৯৪২৯৪ নম্বরে। আমজনতার সেই পরামর্শ নিয়েই তৈরি হবে বঙ্গ বিজেপির নির্বাচনী ইস্তেহার। এই কর্মসূচি চলবে ৩ মার্চ থেকে ২০ মার্চ অবধি। ড্রপবাক্সে আসা পরামর্শ থেকে বাছাই করে তৈরি হবে বিজেপির নির্বাচনী ইস্তেহার। যার মধ্যে থাকবে শিক্ষা, স্বাস্থ্য, কর্মসংস্থান ও সোনার বাংলা গড়া  নিয়ে একাধিক প্রস্তাব। 
কর্মসূচির সূচনা করে নাড্ডা বলেন, ‘‌আজ বাংলা যা ভাবে, তা আগামী দিনে গোটা ভারত ভাবে। বাংলার মনীষীরা গোটা দেশকে পথ দেখায়। তাঁদের সেই চিন্তাভাবনাকে একত্র করে বিজেপি নির্বাচনী ইস্তেহার তৈরি করতে চায়। আমরা মনে করি বাংলার মানুষ জানে, কীভাবে সোনার বাংলা বানাতে হবে। তাই আমাদের ইস্তেহারে সাধারণ মানুষের মতামত নেওয়া হবে। মোট ২ কোটি মানুষের মতামত আমরা নেব। সাধারণ মানুষের মতামত নিয়েই বাংলা এগিয়ে যাবে।’‌ এরপরই নাড্ডার সংযোজন, ‘‌বিজেপি এলে রাজ্যে চালু হবে প্রধানমন্ত্রী কিষাণ সম্মান নিধি। চালু হবে আয়ুষ্মান ভারত প্রকল্প। কার্যকর করা হবে সপ্তম বেতন কমিশন।’‌ ক্ষমতায় এলে সিন্ডিকেট এবং দুর্নীতিমুক্ত বাংলা গড়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন নাড্ডা। 

জনপ্রিয়

Back To Top