আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ আগামিকাল দিল্লি যাচ্ছেন না। তৃণমূলেই রয়েছেন। জানিয়ে দিলেন সাংসদ শতাব্দী রায়। শতাব্দীর এই অবস্থান বদলের নেপথ্যে রয়েছেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। এদিন সন্ধেবেলা তাঁর দপ্তরে শতাব্দীকে নিয়ে যান তৃণমূলের মুখপাত্র কুণাল ঘোষ। সেখানে বৈঠকের পরেই মত বদলালেন শতাব্দী।  
বৈঠক শেষে বেরিয়ে শতাব্দী বললেন, ‘‌আমার যা কথা ছিল, অভিযোগ ছিল, সমস্যা ছিল, তা   আমি আমাদের নেতা অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে জানিয়েছি। ওঁর সঙ্গে আলোচনা করেছি। উনি প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন সমস্যাগুলোর সমাধান হবে। আমি তাতেই বিশ্বাস করছি।’‌
পাশাপাশি শতাব্দী এও জানিয়ে দিলেন, ‘‌আগামিকাল দিল্লি যাচ্ছি না। আমি মমতা ব্যানার্জির জন্য দলে এসেছিলাম। ওঁর জন্যই আছি। যাঁরা তৃণমূলকে ভালবাসেন, তাঁদের সকলে দলের সঙ্গেই আছেন।’‌ বৃহস্পতিবার শতাব্দীর ফ্যান পেজে একটি পোস্ট দেখা যায়, সেখানে তিনি জানিয়েছিলেন, চাইলেও নিজের কেন্দ্রের কর্মসূচিতে অংশ নিতে পারেন না। কারণ তাঁকে জানানো হয় না। শনিবার দুপুর ২টোয় ফেসবুক লাইভে আসার কথাও ঘোষণা করেছিলেন। 
তার পর থেকেই শতাব্দীর সঙ্গে যোগাযোগ করেন একের পর এক তৃণমূল নেতা। খবর ছিল, তাঁকে ফোন করতে পারেন সুপ্রিমো মমতা ব্যানার্জিও। তাঁর বাড়িতে যান দলের মুখপাত্র কুণাল ঘোষ। কুণালের সঙ্গেই কলকাতার ক্যামাক স্ট্রিটে অভিষেকের কার্যালয়ে যান শতাব্দী। সেখানে আলোচনার পর গলল বরফ। 

জনপ্রিয়

Back To Top