অন্তরা মাইতি:‌ কলকাতার বড় পুজোগুলির নাম বলতে গেলে বলতেই হবে শিয়ালদহ সন্তোষ মিত্র স্কোয়্যারের লেবুতলা পার্কের পুজোর কথা। কোনওবার দুর্ঘটনাগ্রস্ত ট্রেনের কামরা, তো কোনওবার জাহাজ, কোনওবার রোমান স্থাপত্য, তো কোনওবার রুপোর রথ। আবার কখনও সোনার শাড়ি পরিহিতা দশভুজা। লেবুতলা পার্কের পুজো বরাবরই ভিড় টেনেছে তার স্বকীয়তায়। এবার তাদের মন্ডপ হচ্ছে বদ্রীনাথ মন্দিরের আদলে।

শিল্পী রণজিৎ রক্ষিত। সাবেকি ধাঁচের প্রতিমার শিল্পী মিন্টু পাল। করোনা আবহে পুজোয় নিজের বৈশিষ্ট্য বজায় রাখল সন্তোষ মিত্র সার্বজনীন দুর্গোৎসব কমিটি।
বিজ্ঞপ্তি দিয়ে কমিটির সভাপতি প্রজীপ ঘোষ এবং সাধারণ সম্পাদক সজল ঘোষ সবাইকে জানিয়েছেন, মানুষের স্বাস্থ্যের কথা মাথায় রেখেই এবার সাধারণ দর্শনার্থীদের জন্য সন্তোষ মিত্র স্কোয়্যারের দরজা বন্ধ থাকছে। শুধুই স্থানীয় বাসিন্দা এবং পুজো কমিটির সদস্যরা, তাঁদের পরিজনেরাই মন্ডপে প্রবেশ করতে পারবেন।

এই অসুবিধার জন্য দর্শকদের কাছে ক্ষমা চেয়ে নিয়ে বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, সাধারণ দর্শকরা এই পুজোর সম্পূর্ণ আনন্দ নিতে পারবেন সোশ্যাল মিডিয়ায়। বোধন থেকে বিসর্জন, দুর্গা পুজোর পাঁচ দিনের যাবতীয় পূজাপোচারের অনুষ্ঠান অনলাইনে দেখতে পারবেন দর্শকরা। কমিটির এই উদ্যোগের প্রশংসা করেছেন কুণাল সরকার, দ্বৈপায়ন মজুমদার, সৌরভ দত্ত, সঞ্জীব ব্যানার্জির মতো বিশিষ্ট চিকিৎসকরা।
ছবি:‌ সন্তোষ মিত্র স্কোয়্যার সার্বজনীন দুর্গোৎসব কমিটির ফেসবুক পেজ

জনপ্রিয়

Back To Top