আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ একটি ডেটিং অ্যাপের বিজ্ঞাপনে নুসরতের ছবি। বন্ধুত্বের হাতছানি রয়েছে সেখানে। লেখা, ‘‌লকডাউনে ঘরে বসে বন্ধুত্ব পাতান।’‌ বিষয়টি নুসরতের গোচরে আনেন এক টুইটার ইউজার। নায়িকা জানান, এ বিষয়ে তাঁর অনুমতি নেওয়া হয়নি। তিনি কিছুই জানেন না।
তার পরই কলকাতা পুলিশের সাইবার শাখাকে বিষয়টিতে নজর দেওয়ার অনুরোধ জানালেন তৃণমূল সাংসদ। বিষয়টি নিয়ে তিনি আইনি পদক্ষেপ করতেও রাজি। লিখলেন সেকথা। 
সোমবার সকালে এক টুইটার ইউজার নুসরতকে ট্যাগ করে লেখেন, ‘‌এক জন সাংসদ–নায়িকার মুখ ভিডিও চ্যাট অ্যাপে ব্যবহার হচ্ছে। তাঁর অনুমতি ছাড়া!‌ কী ভাবে সম্ভব?’ তার পরই নড়ে চড়ে বসেন নুসরত। টুইটারে লেখেন, ‘‌আমার অনুমতি ছাড়া ছবি ব্যবহার করা হচ্ছে। এটা মেনে নেওয়া যায় না। কলকাতা পুলিশের সাইবার সেলকে জানাচ্ছি। আইনি ব্যবস্থা নেব।’ এর পর পুলিশ কমিশনার অনুজ শর্মাকে বিষয়টি জানান তিনি। ওই অ্যাপ–এর বিরুদ্ধে এফআইআর করেছেন। 
জানা গেছে, পুলিশ কমিশনার অনুজ শর্মা বিষয়টি নিয়ে তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন। এ দিন টুইটারে কলকাতা পুলিশের গোয়েন্দাপ্রধান মুরলীধর শর্মা জানান, ‘তদন্ত শুরু হয়েছে। প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ করা হচ্ছে।’ ওই অ্যাপ–এর তরফে জানানো হয়েছে, ১০ লক্ষ ইউজার রয়েছে তাদের। অ্যাপটির মাধ্যমে ইউজাররা দুনিয়া জুড়ে বন্ধু পাতিয়ে থাকেন। 

জনপ্রিয়

Back To Top