আজকালের প্রতিবেদন- পোস্তা উড়ালপুলের বিপজ্জনক অংশ ভেঙে ফেলা হবে। ২০১৬ সালে ভেঙে পড়ার পর এই উড়ালপুলকে নতুন করে তৈরি করা হবে কিনা তা নিয়ে কোনও সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি। কিন্তু দীর্ঘদিন ধরে এইভাবে পড়ে থাকার ফলে উড়ালপুলের কিছু কিছু অংশ নড়বড়ে হয়ে গিয়েছে। তাই কেএমডিএ–র তরফ থেকে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে, সেই অংশগুলিকে চিহ্নিত করে ভেঙে ফেলা হবে। যাতে আর নতুন করে কোনও দুর্ঘটনা না ঘটে। লালবাজার সূত্রে জানা গেছে, আগামী ১০ জুলাই কেএমডিএ, কলকাতা পুলিশ এবং কলকাতা পুরসভার একটি প্রতিনিধি দল উড়ালপুল পরিদর্শন করবে। এই প্রতিনিধি দলের রিপোর্টের ভিত্তিতে কবে থেকে ভাঙার কাজ শুরু হবে তা চূড়ান্ত করা হবে। 
প্রসঙ্গত, ২০১৬ সালের ৩১ মার্চ গণেশ টকিজের কাছে, চিৎপুর রোড ও মহাত্মা গান্ধী রোডের সংযোগস্থলে ভেঙে পড়ে নির্মীয়মাণ উড়ালপুলটি। এই ঘটনায় মারা যান ২৬ জন। মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জির নির্দেশে তদন্ত কমিটি গড়া হয়। নির্মাণকারী সংস্থাটিকে কালোতালিকা ভুক্ত করা হয়। সংস্থার কর্তাদের গ্রেপ্তারও করে পুলিশ। উড়ালপুল নির্মাণে কেএমডিএ–র দায়িত্বপ্রাপ্ত ইঞ্জিনিয়ারদেরও সাসপেন্ড করা হয়।‌

ভেঙে পড়া পোস্তা উড়ালপুল। ফাইল ছবি

জনপ্রিয়

Back To Top