আজকালের প্রতিবেদন: প্রবীণদের আপদে–বিপদে স্বাস্থ্যের খেয়াল রাখতে কলকাতায় নতুন পরিষেবা নিয়ে হাজির ‘‌জ্যাপ কিউরে’‌। হঠাৎ করে শৌচাগারে পড়ে গেলে কিংবা বাড়িতে কোনও অসুবিধায় পড়লে বিপদসঙ্কেত বোতাম চাপলেই সহায়কারীরা দ্রুত পৌঁছে যাবেন প্রবীণ মানুষটির বাড়িতে। জানুয়ারি মাস থেকে সংশ্লিষ্ট সংস্থা পথচলা শুরু করলেও, বুধবার আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন হয়।  বুধবার কলকাতায় সাংবাদিক সম্মেলনে সংস্থার অধিকর্তা লিগ্যাল প্রদ্যুম্ন সিনহা জানিয়েছেন, ‘‌ইতিমধ্যেই আমাদের ১০০ জন সদস্য হয়েছেন। বয়স্কদের আমরা সিম–‌সহ সাধারণ কিপ্যাড ফোন দিচ্ছি। ফোনের পিছনে একটি লাল বোতাম রয়েছে (‌এসওএস)। বিপদের সময় সেটি একবার চাপলেই আমাদের কল সেন্টার, অ্যাম্বুল্যান্স, প্রবাসে থাকা ছেলেমেয়েদের কাছে, স্থানীয় যোগাযোগ–‌সহ ৬–১০টি গুরুত্বপূর্ণ নম্বরে বেজে উঠবে। এছাড়াও একটি লকেট দিচ্ছি, যেটি গলায় থাকবে। শৌচাগারে পড়ে গেলে লকেটটি চাপলে আমাদের কলসেন্টারে বিপদ অ্যালার্ম বাজামাত্রই সঙ্গে সঙ্গে আমাদের সদস্যরা তাঁর কাছে পৌঁছে যাবেন। এছাড়াও বাড়িতে চিকিৎসক, ফিজিওথেরাপিস্ট যাবেন।’‌ অভিনেত্রী গার্গী রায়চৌধুরি বলেন, ‘‌আমি বিভিন্ন জায়গায় ঘুরে দেখেছি, যাঁদের ছেলেমেয়েরা বিদেশে থাকেন, সেই সমস্ত বাড়ির বয়স্করা বড্ড অসহায় বোধ করেন। পরিচারিকার হাতে নিজেদের জীবন সঁপে দেন। বয়স্কদের একটু সহায়তা, ভালবাসা, যত্ন এবং সম্মান প্রয়োজন। তাঁদের জন্য এ ধরনের সংস্থা যা অত্যন্ত প্রয়োজন।’‌ সল্টলেক সেক্টর ফাইভে অবস্থিত সংস্থাটিতে ৪৫ হাজার থেকে ২ লক্ষ টাকা পর্যন্ত প্যাকেজ রয়েছে। প্রিমিয়াম ছাড়া সাত লক্ষ টাকা পর্যন্ত স্বাস্থ্যবিমার সুবিধা এমনকি এয়ার অ্যাম্বুল্যান্সের সুবিধাও রয়েছে। এছাড়াও বয়স্কদের একাকীত্ব কাটাতে গল্প করা, সিনেমা দেখানো, গল্পের বই পড়ে শোনানো, ঘোরানো প্রভৃতি ব্যবস্থাও রয়েছে।‌‌

জনপ্রিয়

Back To Top