আজকালের প্রতিবেদন—পায়রা নিয়ে বচসার জেরে বন্ধুকে পিটিয়ে মারল বন্ধুরা। ঘটনায় তিনজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে বুধবার ভোরে। নিহত যুবকের নাম রানা দাস। বাড়ি নারকেলডাঙা এলাকায়। পুলিস জানিয়েছে, স্থানীয় বেশ কিছু যুবকের সঙ্গে রানা পাখি কেনাবেচার ব্যবসা করত। পুলিস জানিয়েছে, পাখি কেনাবেচা বেআইনি। ওই পাখি বিক্রির সূত্রে রানার বন্ধু চিনু, রাকেশ, অমিত, ডেভিড ও ১০ থেকে ১২ জন জড়িত ছিল। ব্যবসা ঘিরে মাঝেমাঝেই ঝামেলা হত। অভিযোগ, ওইদিন ভোরবেলায় গুরুদাস ব্যানার্জি হল্ট স্টেশনে রানাকে ডেকে নিয়ে যাওয়া হয়। ব্যবসার বিষয় নিয়ে শুরু হয় তর্কাতর্কি। এরপরেই প্ল্যাটফর্মের ওপর রানাকে বঁাশ দিয়ে পেটানো হয়। তাকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় এনআরএস হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানেই সে মারা যায়। ভাইকে বঁাচাতে গেলে মারধর করা হয় রানার ভাইকে। তাকেও নিয়ে যাওয়া হয় হাসপাতালে। যেহেতু স্টেশনের ওপরের ঘটনা, শিয়ালদা জিআরপি খুনের মামলা–সহ আরও চারটি ধারায় মামলা দায়ের করে। তিনজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এই ঘটনা ঘিরে এলাকায় উত্তেজনা দেখা দেয়। বৃহস্পতিবার রানার মৃত্যুর খবর পাড়ায় আসতেই স্থানীয় বাসিন্দারা দোষীদের শাস্তি চেয়ে পথ অবরোধ করে। ‌

জনপ্রিয়

Back To Top